লন্ডনে পাতালরেলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় একজন গ্রেফতার

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: যুক্তরাজ্যের লন্ডনে পাতাল রেলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় শনিবার সন্দেহভাজন এক তরুণকে (১৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। কেন্ট পুলিশ ডোভারের বন্দর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। তবে তার নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

বিবিসি জানিয়েছে, লন্ডন মহানগর পুলিশের উপসহকারী কমিশনার নেইল বাসু এই গ্রেপ্তারকে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি বলে মন্তব্য করেছেন। তবে আরও হামলার আশঙ্কায় দেশটিতে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা সতর্কতা জারি আছে।

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি বিশেষ বিশেষ স্থানে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। যানবাহনসহ লন্ডনের রাস্তায় বাড়ানো হয়েছে সশস্ত্র পুলিশের টহল।

নিরাপত্তা সতর্কতা জারির এ ব্যবস্থা ২০০৬ সালে জনসমক্ষে প্রকাশ শুরু হয়। সেই থেকে এবার চতুর্থবারের মতো সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হলো। সর্বশেষ গত মে মাসে ম্যানচেস্টারে মার্কিন পপ তারকা আরিয়ানা গ্রান্ডের সংগীতানুষ্ঠানে বোমা হামলার পর সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়। সাধারণত তিন থেকে চার দিনের জন্য স্থায়ী হয় এমন সতর্কতা।

শুক্রবার সকালে লন্ডনের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশের ফুলহাম এলাকার পারসনস গ্রিন স্টেশনে ‘ডিসট্রিক্ট লাইট’ রেলের একটি কামরায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় ২৯ জন আহত হয়। চলতি বছর এটি লন্ডনে পঞ্চম সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা। তবে এটি প্রথম কোনো হামলা যাতে কেউ নিহত হয়নি।

পুলিশ বলছে, হামলায় ‘ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস’ (আইডি) ব্যবহার করা হয়েছে। এতে টাইমারও সেট করা ছিল। সম্ভবত তৈরির প্রক্রিয়াগত ত্রুটির কারণে বোমাটি সন্ত্রাসীদের পরিকল্পনামাফিক বিস্ফোরিত হয়নি। ফলে রক্ষা পেয়েছে বহু প্রাণ।

বিবিসি জানায়, হামলাকারী ধরতে লন্ডনের সিসিটিভি ফুটেজ যাচাইয়ে নিয়োজিত হয়েছে শত শত পুলিশ। পুলিশের ধারণা, এ হামলায় একাধিক সন্ত্রাসী জড়িত থাকতে পারে। কে বোমা বহন করল, কীভাবে-কোথায় এটি তৈরি হলো এবং কারা এদের উদ্বুদ্ধ করল—এসব প্রশ্নের সমাধানে চলছে তদন্ত।

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। তবে লন্ডন মহানগর পুলিশের ডেপুটি কমিশনার মার্ক রাওলি বলেন, হামলাকারীর সঙ্গে আগাম কোনো যোগাযোগ থাক বা না থাক, যেকোনো হামলার দায় স্বীকার করা আইএসের জন্য নিত্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open