বানিয়াচংয়ে কলেজ ছাত্রের ছুরিকাঘাতে অারেক ছাত্র আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি:: হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে জনাব আলী ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র ফয়সল মিয়ার উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে একই কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তুহিন মিয়া (২০) গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত তুহিন বানিয়াচং যাত্রাপাশা মহল্লার জয়নাল মিয়ার পুত্র।

সোমবার (১১ই সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টার দিকে জনাব আলী ডিগ্রি কলেজ গেইটের সামনে এ ঘটনা ঘটে ।

জানা যায়, কয়েকদিন পূর্বে প্রথমরেখ গ্রামের রবি হোসেনের কলেজ পড়ুয়া পুত্র ফয়সল মিয়ার সাথে যাত্রাপাশা মহল্লার জয়নাল মিয়ার কলেজ পড়ুয়া পুত্র তুহিনের তর্কবিতর্ক হয়। পরে এক ছাত্রলীগ নেতার হস্তক্ষেপে বিষয়টি মিমাংসা করে দেয়া হয়। এরই জের ধরে সোমবার ফয়সল তার কয়েকজন বহিরাগত বন্ধুদের নিয়ে কলেজ গেইটের সামনে অবস্থান নেয়। ক্লাস শেষে তুহিন কলেজ ক্যাম্পাস থেকে বের হওয়া মাত্রই ফয়সল ছুরি দিয়ে উপর্যুপরি তার পিঠে আঘাত করে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তার চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তুহিনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বানিয়াচং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তুহিনের অবস্থার অবনতি হলে তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে ফয়সলের সহযোগী রিপনকে (২২) আটক করে শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়রা। পরে তাকে উত্তম-মধ্যম দিয়ে ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রেখাছ মিয়ার কাছে নিয়ে আসে তারা। আটক রিপন এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত বলে জানা গেছে। তার বাড়ি ঠাকুরাইন দীঘির পাড়। বাবার নাম মৃত রিফাত উল্লা।

ঘটনার খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার এসআই রাজীবুল ইসলাম রাজিব ও এসআই ওমর ফারুক মোড়লের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে আটক রিপন কে থানায় নিয়ে যান। সেখানে তার দেহ তল্লাশি করে নেশা জাতীয় দ্রব্য হেরোইন পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন এসআই ওমর ফারুক মোড়ল। তবে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলা দায়েরের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

Open