বীরাঙ্গনা কাঁকন বিবিকে নগরীতে স্থায়ী বসবাসের ব্যবস্থা করার জন্য অর্থমন্ত্রী বরাবরে আবেদন

বীরাঙ্গনা নুরজাহান বেগম কাঁকন বিবিকে সিলেট শহরে যে কোন স্থানে স্থায়ী বসবাসের ব্যবস্থা করার জন্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বরাবরে একটি আবেদন করেছেন কাঁকন বিবির মেয়ে মোছা. সখিনা খাতুন।

সোমবার (১১ই সেপ্টেম্বর) সকালে অর্থমন্ত্রীর বাসভবন নগরীর হাফিজ কমপ্লেক্সে এ আবেদন পৌঁছানো হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জাতিসংঘে সাবেক স্থায়ী কমিটির সদস্য এ.কে আবদুল মোমেন, বীরমুক্তিযোদ্ধা বীরাঙ্গনা নুরজাহান বেগম কাঁকন বিবিসহ আরো অনেকে।

আবেদনে উল্লেখ করা হয়- বীরমুক্তিযোদ্ধা বীরাঙ্গনা নুরজাহান বেগম কাঁকন বিবি মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বাংলাদেশকে স্বাধীন ও শত্র“মুক্ত করার জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছেন। যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে পাক-বাহিনীরা একাধারে নির্যাতন করে মৃত ভেবে তাকে এক জঙ্গলে ফেলে রেখে যায়। নির্যাতনের চিহ্ন এখন কাঁকন বিবির শরীরে বিদ্যমান।

আবেদনে আরো উল্লেখ করেন- বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর এ বীরাঙ্গনাকে অনেক সাহায্য সহযোগিতা করেছেন। গত ১৯শে জুলাই কাঁকন বিবি অসুস্থ হয়ে পড়লে সিলেট ওসমানী মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন সময়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ সব সময় চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিয়েছেন। যা নিশ্চয় প্রশংসার দাবিদার। প্রায় দেড় মাস পর গত ২৮শে আগস্ট কাঁকন বিবিকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। ছাড়পত্রে প্রতি সপ্তাহে একবার ডাক্তার দেখানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। কাঁকন বিবির গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলার দোয়াবাজার উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে হওয়ায় প্রতি সপ্তাহে একবার ডাক্তার দেখানো অনেক কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। এখনো কাঁকন বিবি পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে উঠতে পারেন নি। ঘন ঘন সিলেটে নিয়ে এসে ডাক্তার দেখালে শারীরিক অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যাবে। তাই বীরাঙ্গনা কাঁকন বিবিকে বাঁচিয়ে রাখতে সিলেট শহরে একটি স্থায়ী আবাসনের প্রয়োজন। -বিজ্ঞপ্তি

Open