বালাগঞ্জে সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যানের আধিপত্যকে কেন্দ্র করে সংষর্ষে দিনমজুর নিহত

নিজস্ব প্রতিনিধি:: সিলেটের বালাগঞ্জে সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যানের আধিপত্যকে কেন্দ্র করে সংষর্ষে ০১ জন নিহত হয়েছেন। এতে দুই পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মৌলভীবাজার ও সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার পুর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নের কুশিয়ারা বাজার প্রকাশিত প্রেম বাজারে পশ্চিম ইছাপুর ও কিত্তে জালালপুর গ্রামবাসীর মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পশ্চিম ইছাপুর গ্রামের বাসিন্দা পুর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সান উল্লা ও কিত্তে জালালপুর গ্রামের বাসিন্দা একই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের নেতৃত্বে এই সংঘর্ষ বাঁধে। সংষর্ষে নিহত দিলোয়ার একই ইউনিয়নের পশ্চিম ইছাপুর গ্রামের নওশা মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় একজন দিনমজুর।

সংঘর্ষের ঘটনায় পুর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সান উল্লার ছেলে হাছান মিয়া বাদি হয়ে মঙ্গলবার রাতে বালাগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২। মামলায় ঐ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনসহ ৪০ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা আরো এক থেকে দেড় শতাধিক লোককে অভিযুক্ত করা হয়েছে। সংষর্ষের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কিত্তে জালালপুর গ্রামের ইউপি সদস্য আব্দুস হাসিদ সহ সাত জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এদিকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে বুধবার বিকেলে নিহত দিলাওরের লাশ তার গ্রামের বাড়িতে পৌঁছলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। তার ০৪ ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open