শাবির সেই নিখোঁজ শিক্ষার্থীর সন্ধান মিলেছে

সুরমা টাইমস ডেস্ক: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিখোঁজ শিক্ষার্থী জহিরুল ইসলামের (২৫) সন্ধান পাওয়া গেছে। নিষিদ্ধ সংগঠনের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে ঢাকার তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার পুলিশ গত ৬ আগস্ট তাঁকে গ্রেপ্তার করে। তাঁকে গ্রেপ্তারের খবর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা-পুলিশ গতকাল বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) গণমাধ্যমকে জানিয়েছে।

জহিরুল ইসলামের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে- তিনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র। পোল্যান্ডে লেখাপড়া করার জন্য সম্প্রতি তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি করছিলেন। ৬ আগস্ট ঢাকা থেকে বিমানযোগে ভারতে গিয়ে সেখানে অবস্থিত পোল্যান্ডের দূতাবাস থেকে তাঁর ভিসা নেওয়ার কথা ছিল। তাই ৫ আগস্ট রাতে তিনি সিলেট থেকে বাসে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন। এরপর থেকে তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান না-পেয়ে ১২ আগস্ট তাঁর বড় ভাই আমিরুল ইসলাম সিলেট কোতোয়ালি থানায় জিডি করেন।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর ও ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক আবু হেনা এর আগে জানিয়েছিলেন, জহিরুল ক্লাসে অনিয়মিত ছিলেন। ঢাকার গুলশানের হোলি অর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরি করা হয়। ওই তালিকায় জহিরুলের নাম রয়েছে।

সাত-আট দিন আগে স্বজনেরা খবর পান, জহিরুলকে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তাঁর সহপাঠীরা বলেন, ক্যাম্পাসে তিনি ‘রিয়াজ আবদুল্লাহ’ নামে পরিচিত।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার উপ-পরিদর্শক মোর্শেদ আলম গতকাল বিকেলে মুঠোফোনে বলেন, নিষিদ্ধ সংগঠনের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে জহিরুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জহিরুলের বড় ভাই আমিরুল ইসলাম বলেন- নিষিদ্ধ সংগঠনের সঙ্গে তাঁর ভাই জড়িত কি-না, সে ব্যাপারে তাদের ধারণা নেই।

Sharing is caring!

Loading...
Open