কানাইঘাট দলিল লেখক সমিতির কলম ও কর্মবিরতী পালন

সুুরমা টাইমস ডেস্ক : কানাইঘাট দলিল লেখক সমিতির সভাপতিকে ইউএনও অফিসে আটকে জোরপূর্বক লিখিত জবানবন্দি নেওয়া ও অশালীন ব্যবহারের প্রতিবাদে সমিতির সদস্যরা কলম ও কর্মবিরতী পালন করছেন।
শনিবার দুপুরে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলণের মাধ্যমে একথা জানিয়েছেন তারা।
সংবাদ সম্মেলণে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কানাইঘাট দলিল লেখক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক এম বুরহান উদ্দিন।
লিখিত বক্তব্যে এবং বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বুরহান উদ্দিন ও সমিতির সভাপতি ফয়জুর রহমান জানান, কানাইঘাট বড়চতুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হোসেন ২০/২৫ জন লোক নিয়ে সম্পাদিত একটি দলিল নেওয়ার জন্য গত ৯ আগস্ট সন্ধ্যায় দলিলের লেখক নুর আহমদ ও কানাইঘাট দলিল লেখক সমিতির সভাপতি ফয়জুর রহমানকে চাপ দেন। ফয়জুর রহমান দাতা ও গ্রহীতা ছাড়া দেওয়া সম্ভব হবেনা বললে আবুল চেয়ারম্যান তার লোকজন নিয়ে দুর্ব্যাবহার ও হুমকী ধমকী শুরু করেন। এক পর্যায়ে তারা ইউএনও অফিসে নিয়ে ইউএনওকে প্রভাবিত করে ফয়জুর রহমানকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ৩শ’ টাকার ষ্ট্যাম্পে জবানবন্দি নেন। তারপর ইউএনও তাহসিনা বেগম দলিলটি জোরপূর্বক নিয়ে আবুল হোসেন চেয়ারম্যানের দিয়েছেন।
ফয়জুর রহমান সংবাদ সম্মেলণে মৌখীকভাবে বলেন যে, চেয়ারম্যান আবুল ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের চাঁদা না দিয়ে ঐ এলাকায় কেউ জমি বিক্রী করতে পারেনা। যে দলিলটি জোরপূর্বক নেওয়া হয়েছে সেটি একটি অসম্পাদিত দলিল এবং আবুল চেয়ারম্যান এ দলিলের ক্রেতা বা বিক্রেতা কোন পক্ষের লোক নয়।
এই ঘঠনাটি তারা স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং কানাইঘাট উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত আকারে জানানো হয়েছে বলেও তারা সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন।
তারা জানিয়েছেন ১০ আগস্ট থেকে তারা কলম ও কর্মবিরতী পালন করে যাচ্ছেন এবং সুষ্ঠ সমাধান না হওয়া পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকবে।
এ ব্যাপারে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালানোর নিন্দা জানিয়ে তারা এর থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open