বিএনপির মৌনতায় আমরা ধরে নেব তারা সুপ্রিম কোর্টের রায়কে মেনে নিয়েছে-ওবায়দুল কাদের

সুুরমা টাইমস ডেস্ক:: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জেনারেল জিয়াউর রহমানের অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল এবং উড়ে এসে জুড়ে বসা বিষয়টি প্রতিষ্ঠিত হলেও বিএনপির মৌনতা প্রকাশ করেছে। আমরা ধরে নেব বিএনপির মৌনতা সুপ্রিম কোর্টের রায়কে মেনে নিয়েছে।

শুক্রবার (১৮ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নীলফামারীর সৈয়দপুর স্টেডিয়াম চত্বরে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি। সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ এই পথসভার আয়োজন করে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা লোক দেখানো ফটোসেশনের জন্য দুর্গত এলাকায় আসিনি। বন্যায় যারা সত্যিকার অর্থে ক্ষতিগ্রস্ত, শেখ হাসিনার সরকার তাদের সকলকেই পুনর্বাসিত করবে।’

বন্যার ভয়াল রূপ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, স্মরণকালের নজিরবিহীন বন্যায় বাড়িঘর, রাস্তাঘাট, আবাদি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বন্যার পরবর্তী সময়ে অনেকে এসেছেন দুর্গত এলাকায়। তাঁরা ভাষণ দিয়েছেন তালি পাওয়ার আশায়। কিন্তু তাঁদের হাত ছিল খালি। বন্যার্তরা কিছুই পায়নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমরা খালি হাতে আসিনি। এসেছি ত্রাণ নিয়ে, ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তরা পুনর্বাসিত না হওয়া পর্যন্ত আমরা তাদের পাশে থাকব।’

বন্যা শেষ হলেও পুনর্বাসন না হওয়া পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকবেন বলে এসময় জানান ওবায়দুল কাদের।

বন্যার্তদের জন্য ত্রাণের অভাব নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোনও মানুষ ত্রাণের অভাবে পড়বে না। আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতা কর্মী বানভাসিদের পাশে অবস্থান করছেন। ত্রাণ দিচ্ছেন, খোঁজ খবর নিচ্ছেন।

ত্রাণ নিয়ে বিএনপি মিথ্যাচার করছে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে অভিযোগ করেছেন সেটি ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। বিএনপির কোনও নেতা নেত্রী হাওরাঞ্চল, উপকূল এমনকি উত্তরাঞ্চলেও ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ায়নি বরং তারা ষোড়শ সংশোধনীর সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।

সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচিতে ৩০০ জনের মাঝে দশ কেজি করে চাল এবং নগদ ৫শ করে টাকা বিতরণ করেন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্বাস আলী সরকার।

এসময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, বিএম মোজাম্মেল হক, প্রেসিডিয়াম সদস্য বাবু সতিশ চন্দ্র রায়, সংসদ সদস্য নাজমুল হক প্রধান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীম, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

Open