মামলা করে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ,পরদিন লাশ উদ্ধার!

সুরমা টাইমস ডেস্ক: মামলা করে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হওয়ার পরদিন গোলাপ আলী (৫৫) নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌর এলাকার চরগাঁও গ্রামে।

পুলিশের ধারণা, তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

সোমবার নগীগঞ্জ থানায় মামলা করার পর বাড়ি ফেরার সময় নিখোঁজ হয়। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ওই এলাকার একটি কবরস্থানে তার লাশ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় সাকিরা বেগম নামে এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত গোলাপ আলীর সঙ্গে তারই চাচাতো ভাই তালেব আলী গংদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের মধ্যে একাধিক মামলা মোকদ্দমাও রয়েছে থানা ও আদালতে।

এদিকে সোমবার রাতে গোলাপ আলীর ঘরের চালের উপর দিয়ে ডিসের লাইন টানানো নিয়ে তালেব আলীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে তালেব আলীর লোকজন গোলাপ আলীর ছেলে সুমন মিয়াকে মারধর করে।

এ ঘটনায় গোলাপ মিয়া সোমবার রাতে নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করার জন্য যান। মামলা দায়ের করার পর রাত থেকেই গোলাপ মিয়া নিখোঁজ হন।

রাতভর খোঁজাখুঁজির পর মঙ্গলবার সকালে চরগাঁও গ্রামের নয়াবাড়ি কবরস্থানের পাশে একটি নির্জনস্থানে গোলাপ আলীর লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

গোলাপ আলীর মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনাটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে ধারণা করছেন নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে একজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। আশাকরি, প্রকৃত অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open