নিউইয়র্কে বাংলাদেশী পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা !

সুরমা টাইমস ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগে (এনওয়াইপিডি) কর্মরত এক বাংলাদেশি কর্মকর্তা আত্মহত্যা করেছেন।

স্থানীয় সময় রোববার বিকালে কুইনসের সেন্ট আলবেন্স এলাকার বাড়ির বেইজমেন্টে নিজের পিস্তলের গুলিতে আত্মহত্যা করেন বলে এনওয়াইপিডির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

নিহত হেমায়েতের বাড়ি বাংলাদেশের সিরাজগঞ্জ জেলায়। ২০০০ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। এর পাঁচ বছর পর তিনি এনওয়াইপিডিতে যোগ দেন।

এ কর্মকর্তা স্ত্রী ও সাড়ে ৩ বছর বয়সী ছেলেসহ পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সেন্ট আলবেন্সের বাড়িতে থাকতেন।

তিনি যখন বাড়ির বেইজমেন্টে আত্মহত্যা করেন, তখন তার স্বজনরা বাসাতেই অবস্থান করছিলেন।

হেমায়েত কেন আত্মহত্যা করেছেন প্রাথমিকভাবে তা জানাতে পারেনি পুলিশ। তবে তার পরিচিতদের ধারণা, দাম্পত্য কলহের জেরে তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

ময়নাতদন্তের জন্যে হেমায়েতের মরদেহ সিটি মেডিকেল এক্সামিনারের অফিসে নিয়ে গেছে পুলিশ।

সেখান থেকে হেমায়েতের মরদেহ ফেরত দেয়ার পর স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর মঙ্গলবার তাকে দাফন করা হবে।

উল্লেখ্য, এনওয়াইপিডিতে ৪৯ হাজার পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছে। তাদের মধ্যে থাকা এক হাজারেরও বেশি বাংলাদেশির অন্যতম ছিলেন হেমায়েত।

চলতি বছর হেমায়েতসহ এনওয়াইপিডির মোট পাঁচজন অফিসার আত্মহত্যা করেছেন।

অন্যদিকে অনাবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যেও আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়ছে। গত ৪ আগস্ট নিউইয়র্কে নাদিয়া আফরোজ সুমি (৩২) নামের এক বাংলাদেশি নারী আত্মহত্যা করেন। তিনি নিজ সন্তানের সামনে গলায় ফাঁস দিয়েছিলেন।

Open