তুফানকে ফের রিমান্ডে চাইবে পুলিশ

সুরমা টাইমস ডেস্ক: ছাত্রী ধর্ষণ ও পরে মা সহ ওই ছাত্রীকে মাথা ন্যাড়া করার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মূল আসামি তুফান সরকার, স্ত্রী আশা সরকার ও শ্বাশুড়ি রুমি বেগমকে ফের রিমান্ডে চাইবে পুলিশ।

বুধবার ধর্ষণের মামলায় তুফানের তিন দিনের রিমান্ড শেষ হচ্ছে। আর নির্যাতনের মামলায় তুফানের স্ত্রী আশা সরকার ও শাশুড়ি রুমি বেগমের দুই দিনের রিমান্ড শেষ হচ্ছে।

এদিন তাদের বগুড়ার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম শ্যামসুন্দর রায়ের আদালতে হাজির করে ফের ৭ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি (অপারেশন) আবুল কালাম আজাদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কিশোরীকে ভালো কলেজে ভর্তির প্রলোভন দেখিয়ে ১৭ জুলাই ও পরে কয়েকবার ধর্ষণ করেন শহর শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক তুফান।

এ কাজে তাকে সহায়তা করেন তার কয়েকজন সহযোগী। বিষয়টি জানতে পেরে তুফানের স্ত্রী আশা ও তার বড় বোন বগুড়া পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মার্জিয়া হাসান রুমকিসহ ‘একদল সন্ত্রাসী’ ওই কিশোরী এবং তার মাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাদের মারধর করে নাপিত দিয়ে মা ও মেয়ের মাথা ন্যাড়া করে দেন।

এ ঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে ২৮ জুলাই রাতে শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকার, তার স্ত্রী আশা সরকার, আশা সরকারের বড় বোন বগুড়া পৌরসভার সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর মার্জিয়া আক্তারসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও নির্যাতনের অভিযোগে দুটি মামলা করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open