র‍্যাবের হাতে জৈন্তাপুর থেকে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক দ্রব্যসহ ২ জন গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক::

সিলেটের জৈন্তাপুর থেকে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক দ্রব্যসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৯।

সোমবার (২৪ জুলাই) রাত ৯টা ৩০ মিনিটে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মিনিটে র‍্যাব-৯ এর একটি আভিযানিক দল সিলেটের জৈন্তাপুর থানাধীন দরবস্ত ইউনিয়নের চতুল বাজার সংলগ্ন লক্ষীপাশা এলাকার আল-মদিনা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে অভিযান চালিয়ে এসব বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করা হয় বলে র‍্যাব-৯ সূত্রে জানা যায়।

র‍্যাব-৯ এর সূত্রে আরো জানা যায়, র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা দৌড়ে পালানোর সময় ২ জনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১ টি নীল রংয়ের পলি ব্যাগ ভর্তি খাকী কাগজের মোড়ানো ৩০ পিস হাই এক্সপ্লোসিভ পাওয়ার জেল, ৩০পিস ইলেকট্রিক ডেটোনেটর, ২ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিরা হলেন, কানাইঘাট থানার বড়বন গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে খায়রুল ইসলাম (২২) ও একই থানার দূর্গাপুর গ্রামের মৃত মাহমুদ আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম (৩৫)।

র‍্যাব-৯ আরো জানিয়েছে, উদ্ধারকৃত বিস্ফোরক দ্রব্যগুলো এতই উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এবং উচ্চ মান সম্পন্ন বিস্ফোরক পদার্থ যার ১০ টি দ্বারা ২/৩ তলা একটি স্থাপনা পুরোপুরি গুড়িয়ে দেওয়া সম্ভব।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় এই বিস্ফোরক গুলো মূলত সীমান্তবর্তী এলাকার কয়লা খনি সমূহে ব্যবহৃত হয় এবং এই বিস্ফোরক চালান মেঘালয় রাজ্যের লাটুম্বাই কয়লা খনিতে কর্মরত কিছু অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীর মাধ্যমে বিভিন্ন হাত হয়ে দুর্গম এলাকার ভিতর দিয়ে আটককৃত ব্যক্তিদের মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। একই জাতীয় বিস্ফোরক সমূহ পূর্বে আটককৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে উদ্ধারকৃত বিস্ফোরকের সাথে হুবহু মিল রয়েছে।

জঙ্গি হামলার মাধ্যমে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির তাদের মূল উদ্দেশ্য ছিলো বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে আসামিরা। অভিযান চালাকালে পালিয়ে যাওয়া আটককৃতদের ৩/৪ সহযোগীদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে বলেও জানায় র‍্যাব-৯।

Sharing is caring!

Loading...
Open