দক্ষিণ সুরমায় কান ধরার ঘটনার মামলায় জামিন পেলেন সেই আ’লীগ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিলেটের দক্ষিণ সুরমার দাউদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল বাছিত বাবুলের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। দাউদুপর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইনাতআলীপুর গ্রামের বাসিন্দা লুৎফুর রহমান লুকুস মিয়াকে মারধর ও মানহানি ঘটানোর মামলায় আদালত সোমবার দুপুরে এ জামিন মঞ্জুর করেছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার ত্রান পেয়েও একটি বেসরকারি টিভিতে অস্বিকার করার ঘটনায় ইউনিয়নের সুধি সমাবেশে দক্ষিণ সুরমার দাউদপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা লুৎফুর রহমান লুকুসের কান টেনে ধরেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল বাছিত বাবুল। লুকুসের কান ধরে মাফ চাওয়ানোর সেই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে আদালত মামলার নির্দেশ দেন। এ ঘটনায় রোববার রাতে লুকুস ও আওয়ামী লীগ নেতা বাবুলকে মোগলবাজার থানায় ডেকে নেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। ওই রাতেই লুকুস বাদী হয়ে মারধর ও মানহানির ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতা বাবুলকে আসামী করে মামলা (নং-৮) দায়ের করেন। রোববার রাতে গ্রেফতার দেখিয়ে সোমবার দুপুরে আওয়ামী লীগ নেকা বাবুলকে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক হরিদাস কুমারের আদালতে হাজির করেন পুলিশ। এসময় বাবুলের আইনজীবী জামিন প্রার্থনা করলে আদালত তার জামিন মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় ত্রাণ পেয়েও একটি বেসরাকারি টিভিকে ত্রান না পওয়ার কথা জানান লুকুস। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ইউনিয়নে সুধি সমাবেশে লুকুস হাত জোড় করে ক্ষমা চাইলেও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল বাছিত বাবুল কান টান দিয়ে ধরেন। ওই ঘটনার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশের পর রোববার রাতে মানহানি ও মারধরের ঘটনায় লুকুস মিয়া বাদী হয়ে বাবুলের নামে মামলা দায়ের করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open