এমপি কয়েসকে নিয়ে কটুক্তির অভিযোগে ছাত্রলীগের ৭ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা।

নিজস্ব প্রতিনিধি: সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ-উস-সামাদ চৌধুরী কয়েসকে নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তির অভিযোগে ছাত্রলীগের ৭ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বালাগঞ্জের রুকনপুর গ্রামের মৃত আব্দুল রফিকের ছেলে এমরুল হক বাদী হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ৫৭ ধারায় বুধবার বালাগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলার এক আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

মামলার আসামিরা হলো-বালাগঞ্জ থানার নশিওরপুর গ্রামের মৃত আবদুল মালিকের পুত্র রায়হান আহদ জয় (২২), খালিছ মিয়ার পুত্র এসএম মুহিত (২৪), জামালপুর গ্রামের আনছার খাঁ’র ছেলে আলবাব খান (২৪), রতনপুর গ্রামের পংকি মিয়ার পুত্র মাসুম আহমদ (২২), নশিওরপুর গ্রামের আবদুল কাদিরের পুত্র আতিফ আহমদ শিমু (২১), আলাপুর গ্রামের আবদুল খালিকের পুত্র আমিনুর রহমান তুহেল (২৩) ও নশিওরপুর গ্রামের মৃত আবদুল খালিকের পুত্র লিমন আহমদ (২১)।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘‘আসামিরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নোংরা ভাষা ব্যবহার করে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ-উস-সামাদ চৌধূরী কয়েসের মানহানি ঘটিয়েছে। ১নং আসামি রায়হান আহমদ জয় তার ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে এমপি কয়েসের ছবি দিয়ে তাকে উল্লেখ করে স্ট্যাটাস দেয় ‘রাজাকার মুক্ত আসন চাই’। ২নং থেকে ৭নং আসামিরাও ফেসবুকে এমপি কয়েসকে নিয়ে বিভিন্ন কটুক্তি করেছে।’

এদিকে মামলার ৩নং আসামি আলবাব খানকে গত রাতে (বুধবার দিবাগত) গ্রেফতার করেছে বালাগঞ্জ থানা পুলিশ। বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম জালাল উদ্দিন আহমদ মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটক আসামীকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open