বিচারপতিদের কটাক্ষ করে কথাবলে সংসদ সদস্যরা নিজেদের করা আইনই ভঙ্গ করেছেন- (সুজন)।

সুরমা টাইমস ডেস্ক:

বিচার বিভাগ নিয়ে জাতীয় সংসদে আলোচনা করার এখতিয়ার সংসদ সদস্যদের নেই বলে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত এক গোলটেবিল বৈঠকে বিশিষ্টজনেরা অভিমত প্রকাশ করেছেন। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর বিচারপতিদের কটাক্ষ করে যে আলোচনা হয়েছে, তাতে সংসদ সদস্যরা নিজেদের করা আইনই ভঙ্গ করেছেন বলেও মন্তব্য তাঁদের।

মঙ্গলবার (১১ জুলাই) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ও করণীয় শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক আয়োজন করে সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন। বক্তব্য রাখেন সংবিধান বিশেষজ্ঞ শাহদীন মালিক, সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, লেখক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদসহ বিশিষ্ট ব্যক্তি ও সংবিধান বিশ্লেষকেরা। এই গোলটেবিলের আয়োজন করে সুজন।

গোলটেবিলের সঞ্চালক সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেন, সংসদের কার্যপ্রণালি বিধির ৫৩, ৬৩, ও ১৩৩ ধারা অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে সংসদে আলোচনা করা যাবে না। এই বিধি সংসদপ্রণীত একটি আইন। সংসদ সদস্যরা নিজরাই তাঁদের করা এই আইন মানেন না। এটা দুঃখজনক।

শাহদীন মালিক বলেন, ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে রায়ের আলোচনার এখতিয়ার সংসদ সদস্যদের নেই। এটি নিয়ে আলোচনা করে তাঁরা নিজেরাই নিজেদের নিয়মকানুন ভঙ্গ করেছেন। তিনি সংসদের ওই আলোচনা ইউটিউব থেকে ডাউনলোড করে সংসদ সদস্যদের দেখার জন্য অনুরোধ জানান।

তিনি বলেন, তাহলে উপলব্ধি হবে, তাঁরা আসলে কী করেছেন।

সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, কোনো দেশের বিচারব্যবস্থা সে দেশের আর্থসামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থার বাইরে নয়। এটা সব আমলেই যা ছিল এখনো তা-ই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতার কথা এ জন্যই বারবার বলা হয়, যাতে রাষ্ট্রের শক্তিশালী ব্যক্তিটির সঙ্গে সবচেয়ে দুর্বল ব্যক্তিটিও ন্যায়বিচার পায়।

গোলটেবিল আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা এম হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুল, পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া প্রমুখ।

Sharing is caring!

Loading...
Open