বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা কোন অপশক্তিকে ভয় পায়না- কেয়া চৌধুরী (এমপি)।

নিজস্ব প্রতিনিধি:: নবীগঞ্জ উপজেলার রইচগঞ্জ বাজারে আঞ্চলিক যুবলীগের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৮শে জুন বুধবার বিকেলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এমপি কেয়া চৌধুরী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক আমি। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমার নেত্রী। আর বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা কোন অপশক্তিকে ভয় পায়না, বাধা দিয়েও আটকানো যায় না। তাই আমাকে অসহযোগীতা না করে, তৃণমূল জনগণের উন্নয়ন কাজে সহযোগীতা করুন।
তিনি বলেন, আমি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র মনোনীত এমপি। তাই নেত্রীর কাছ থেকে একের পর এক বরাদ্দ নিয়ে আসছি। এ বরাদ্দ নবীগঞ্জ-বাহুবলসহ দায়িত্বপ্রাপ্ত এলাকার স্থানে স্থানে পৌঁছে দিচ্ছি। আমার মাধ্যমে কি উন্নয়ন হয়েছে, তা সবাই অবগত রয়েছেন। আমি কোন কিছু লুকিয়ে রাখি না। প্রকাশ্যে সবাইকে সাথে নিয়ে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করছি।
এমপি কেয়া চৌধুরী বলেন, তৃণমূলে ব্যবহারের জন্য সাড়ে ৩ লাখ টাকা ব্যয়ে এ বাজারে একটি পাবলিক টয়লেট ও ১ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করে দেব। আর কি লাগবে আমাকে বলুন, আমি তা পূরণ করার চেষ্টা করব।
তিনি বলেন, যুবক-যুবতীদের কল্যাণে এ সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বেকার যুবক-যুবতীরা সরকারীভাবে প্রশিক্ষণ নিয়ে দেশ-বিদেশে কর্মসংস্থানে যোগদান করে রোজগার করছে। তাই দেশে বেকার সমস্যা দূর হচ্ছে।
শেখ রাজনের সভাপতিত্বে এ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা অনুপ কুমার দেব মনা।
এছাড়া যুবলীগ নেতা হারুনুর রশিদ, মনিরুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম, স্থানীয় আওয়ামী পরিবারের নেতৃবৃন্দ, মুরুব্বীয়ানসহ তৃণমূল নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। এ সময় তৃণমূলেল শত শত লোকজন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে আয়োজকরা ফুল দিয়ে এমপি কেয়া চৌধুরীকে বরণ করে নেয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open