নেইলপলিশ ব্যাবহারে গর্ভধারণে বাঁধা ও ক্যান্সারের ঝুকি বৄদ্ধি করে !!!

সুরমা টাইমস ডেস্ক : নেইলপলিশ না দিলে যেন স্টাইলটাই সম্পূর্ণ হয় না। তাই অনেকেই বাসা থেকে বের হওয়ার আগে দেখে নেন নখের এই রংগুলো ঠিকঠাক আছে কিনা!আবার অনেকে পোশাকের সাথে মিলিয়ে নেইলপলিশ কিনেন। অনেকে আবার পাঁচ নখে পাঁচ রং দেন! নেইলপলিশের ব্র্যান্ড, রঙের পছন্দ, নেইল আর্ট সব যেন মেয়েদের উৎসবের অঙ্গ, সাজের অনুসংগ। এমনকি ব্যাক্তিত্বের প্রকাশ। কিন্তু নেইলপলিশ কি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো? নখে দিনের পর দিন যে ক্যামিক্যাল মেয়েরা ব্যবহার করে চলছে তা কি তাদের ত্বকের ক্ষতি করছে কোনো কারণে? আর তারা তো শুধু ওই রং টুকুই দেয় না, নেইলপলিশ দিলে হাত-পা যাতে সুন্দর লাগে সেজন্য আগে থেকেই মেনিকিওর পেডিকিওর করে। এজন্য যা যা ব্যবহার করে সেগুলি কি ত্বকের জন্য ক্ষতিকর কিনা তারা অনেকেই জানে না।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, হাত-পায়ের যত্নে ব্যবহার করা বিউটি প্রডাক্টগুলো ত্বকের জন্য মোটেও ভালো নয় । এগুলোতে থাকা টক্সিক রাসায়নিকগুলো সিরিয়াস স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ হতে পারে। ক্যালিফোর্নিয়ার ক্যান্সার প্রিভেনশন ইন্সটিটিউট এবং স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির প্রফেসর ডা. থিউ কচ বলেন এই ক্যামিকেলগুলো নারীর উর্বরতার সমস্যা থেকে শুরু করে ক্যান্সারের কারণও হতে পারে!

নেইল কেয়ার পণ্যগুলো ক্ষারীয় এবং বিভিন্নরকম ক্ষতিকর উপাদানে সমৃদ্ধ থাকে। এগুলো কোনটাই আমাদের ত্বকের সাথে মানিয়ে নিতে পারে না। এর অপকারিতাগুলো আমরা সাথে সাথেই দেখতে পাই না। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদে এগুলো বয়ে আনতে পারে জীবনের ঝুঁকি।

গবেষণায় দেখা গেছে, নেইলপলিশে থাকে টলুইন, ফর্মালডিহাইড এবং dibutyl phthalate। এগুলো সবই টক্সিক রাসায়নিক পদার্থ যা আমাদের ত্বকের সংপর্শে আসা উচিৎ নয়। টলুইন হল এক প্রকারের সলভেন্ট যা নখের উপর একপ্রকার আবরণ তৈরি করে এবং নেইলপলিশের রং ঠিক রাখে। আপনি জানলে অবাক হবেন যে, গবেষণায় দেখা গেছে, এই রাসায়নিক আপনার কেন্দ্রীয় নার্ভাস সিস্টেমে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে এবং গর্ভধারণে ঝুঁকির সৃষ্টি করে।

এই সলভেন্ট আসলে পেট্রলকে ঠিক রাখতে ব্যবহার করা হয়। ফর্মালডেহাইড ব্যবহার করা হয় নখ শক্ত করার জন্য এবং নখের যত্নে। অথচ এটি একটি কারসিনোজেন। যার ডাক নাম বলা যায় ‘টক্সিক’ যা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। রাসায়নিক টলুইন, ফর্মালডিহাইড এবং ডিবুটিল ফটালেট যে কোন নেইল কেয়ার পণ্যে থাকবেই। এই ৩ টক্সিক ট্রিও এর সাথে আরও অনেক রাসায়নিক নিত্য যোগ হচ্ছে।

সবচেয়ে ক্ষতির সম্মুখীন হন যারা বিউটি পার্লারগুলোতে এই রাসায়নিকগুলো নিয়ে কাজ করেন। কারণ তাদেরকে ক্রমাগত এগুলো হাতে নিতে হয়। অসংখ্য মানুষকে তারা রোজ নেইল কেয়ার সেবা প্রদাণ করেন। এইসব রাসায়নিকের প্রভাবে ধীরে ধীরে অসুস্থ হতে থাকেন তারা। তাদের ত্বকের ক্ষতি হয়, চোখে সমস্যা হয় এবং বিভিন্ন এলার্জিজনিত সমস্যা হয়। ডা. কচ এর গবেষণা অনুযায়ী এই রাসায়নিকগুলো মনোযোগের সমস্যা, স্মৃতি শক্তি হ্রাস করা সহ অন্যান্য নিউরোলজিকাল সমস্যার জন্যও দায়ী।

নিজেকে সুন্দর হিসেবে তুলে ধরতে চাই আমরা সবাই। মানুষ মাত্রই নিজেকে আরও সুচারু রূপে তুলে ধরতে চায়, প্রশংসা পেতে চায়। কিন্তু নিজের স্বাস্থ্যের চেয়ে জরুরী নয় কিছুই। যতই ভালো ব্রান্ডের পণ্য হোক না কেনো নেইলপলিশে টক্সিক ট্রিও থাকবেই। তাই সবসময় নেইলপলিশ ব্যবহার বন্ধ করুন। ব্যবহার করুন, কিন্তু কোনো বিশেষ অকেশনে। আর নিজের হাত-পায়ের যত্নে আর পার্লারের ভরসা নয়। ভেষজ উপায় গ্রহণ করুন ঘরেই।

তথ্যসূএ : ইন্টারনেট ।।।

Sharing is caring!

Loading...
Open