ছাত্রীর সাথে অনৈতিক আচরণের অভিযোগে শিক্ষক জেলহাজতে।।

নিজস্ব প্রতিনিধি :: জকিগঞ্জের ওয়াজেদ আলী মজুমদার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক আচরণের অভিযোগে খন্ডকালীন শিক্ষক নাজমুল ইসলামের অবশেষে জেলহাজতে ঠাঁই হয়েছে।

জকিগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান হাওলাদার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, শ্রেণীকক্ষে ছাত্রীর সাথে অনৈতিক আচরণের অভিযোগে সোমবার রাতে ঐ ছাত্রীর মা জাকেররা বেগম বাদী শিক্ষক নাজমুল ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টা অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১৪।

দায়েরকৃত মামলায় আটক দেখিয়ে মঙ্গলবার জকিগঞ্জ থানা পুলিশ আটককৃত শিক্ষক নাজমুলকে জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করলে বিজ্ঞ আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। ওসি আরও জানান, নবম শ্রেণীর ঐ ছাত্রী আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি এখনো নেয়া হয়নি। তবে নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, সোমবার বিকেলে জকিগঞ্জের ওয়াজেদ আলী মজুমদার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রাইভেট শেষে অন্য শিক্ষার্থীদের বিদায় করে খন্ডকালীন শিক্ষক নাজমুল ইসলাম নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে আটকে রেখে একটি শ্রেণী কক্ষে নিয়ে দরজা বন্ধ করে অশালীন ও অনৈতিক আচরণ করেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে কয়েকজন লোক বাহির থেকে ঐ শিক্ষক ও ছাত্রীকে শ্রেণী কক্ষে তালাবদ্ধ করে এবং পরে শিক্ষককে গণপিটুনী দিয়ে স্কুল ঘেরাও করে রাখে।

খবর পেয়ে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং পরিস্থিতি শান্ত করে। অভিযুক্ত শিক্ষক নাজমুল ইসলাম জকিগঞ্জের থানাবাজার এলাকার ইলাবাজ গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদের ছেলে। তিনি ৩ সন্তানের জনক বলেও জানাগেছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open