বালাগঞ্জ উপজেলায় বন্যা কবলিত লোকদের মধ্যে এাণ বিতরন করলেন, শফিকুর রহমান চৌধুরী।

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাবেক সংসদ সদস্য ও সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্য সহযোগীতায় সরকারের পাশাপাশি এলাকার বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি বলেন বর্তমান সরকার অসহায়দের পাশে সবসময় আছে এবং থাকবে। তিনি বলেন অকাল বন্যায় বালাগঞ্জ, ওসমানীনগর ও বিশ্বনাথ এলাকার অনেক বানবাসি মানুষ অর্ধাহারে অনাহারে দিনাতিপাত করে কষ্টকর জীবন যাপন করছে। তাদের পাশে সমাজের বিত্তবানরা সমাজকর্মীদের তাদের পাশে দাড়ানোর আহবান জানান।

তিনি গত মঙ্গলবার (২০ জুন) শনিবার বালাগঞ্জ উপজেলা বন্যা কবলিত বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন শেষে উপজেলা কমপ্লেক্স এ বন্যার্তদের মধ্যে চাউল ও ব্যক্তিগত তহবিল থেকে আর্থিক অনুদান বিতরন কালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বালাগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবদাল মিয়া, ইউএনও প্রদীপ সিংহ, ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ আলী আজগর, অফিসার ইনচার্জ এস এম জালাল উদ্দিন আহমদ, বালাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এম এ মতিন, বালাগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মুনিম, সমাজসেবী জুনেদ মিয়া, সাংবাদিক রজত দাস ভুলন, ্এস এম হেলাল, শেখ কবিরুল ইসলাম, আইনুর আহমদ রুমন, ইউপি সদস্য আব্দুস শহীদ, জয়দীপ দাস,ফয়জুল হক, আহমদ আলী, আওয়ামীলীগ নেতা আনছার মিয়া, প্রদীপ দাস , সচিব রঙ্গেশ দাস, বালাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নয়ন তালুকদার, মাহবুব আলম তুহিন, সহ প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও দলীয় নেতৃবৃন্দ। প্রায় দুইশত জনের মধ্যে নগদ অর্থ ও ১০ কেজি করে চাউল বিতরণ করেন।

উল্লেখ্য যে, বালাগঞ্জ কুশিয়ারা নদীর পানি আকষ্মিক বৃদ্ধির কারণে নদী পারের প্রায় ৪০টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ১৫শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এলাকার বাসিন্দারা এখন আতংকে দিন অতিবাহিত করছে। নদীর তীর ঘেষা বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সম্মুখের রাস্তা পানিতে তলিয়ে গেছে। বালাগঞ্জের করচারপাড় এলাকায় কুশিয়ারা ডাইক ভেঙ্গে যাওয়ায় উপজেলা সদর সহ বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত। তারমধ্যে উপজেলা কমপ্লেক্য্র, হাসপাতালরোড ও বালাগঞ্জ বাজারে পানি উঠে গেছে।
আক্রান্ত হয়েছে রাধাকোনা, করছারপাড়, কালিয়ারগাও, হুসনপুর , বিতুনীয়া, কাজীপুর, সত্যপুর কুশারগ্রাম, রুপিয়া, প্রসন্নপুর,গুড়াপুর, রহমতপুর, বোয়ালজুড়ের মাকড়সী, সিংড়াকোনা , মনোহর পুর , সরমানন্দপুর, সোনাপুর , রুপাপুর. পূর্ব পৈলনপুরের এৗয়া, পৈলনপুর, রসিদপুর, বঙ্গপুর ও হামছাপুর, পশ্চিমগৌরিপুরের তেঘরিয়া, লোহামুড়া, একাচিকন, শ্রীনাথপুর সহ ৪০টি গ্রাম ।

এদিকে কুশিয়ারা নদীর পানিতে ডুবে গেছে বালাগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের মূল সড়ক ও অফিসপাড়া। উপজেলা প্রশাসনের মাঠে সহ অফিসগুলোতে পানি উঠার কারনে প্রশাসনিক ভবনের নিচতলার অফিসগুলোর ভিতরে পানি প্রবেশ করেছে। পানি অব্যাহত বৃদ্বির ফলে অফিস পাড়ার আবাসিক এলাকা গুলো পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে। উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে প্রায় ৪০টি গ্রাম ও ১৫শ পরিবার পানিবন্দি রয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open