গরমে ক্ষিপ্ত হয়ে গাড়িতে ধাক্কা, কাঁচ ভেঙে চালকের আসনে ঘোড়া!

প্রচণ্ড দাবদাহে মানুষই কার্যত পাগল হওয়ার উপক্রম, আর পশু-পাখি তো কোনো ছাড়! তাইে তো গ্রীষ্মের প্রচণ্ড গরমে একপ্রকার ক্ষিপ্ত হয়ে সোজা গাড়িতে ধাক্কা এক ঘোড়ার, এরপর গাড়ির উইন্ড স্ক্রীন ভেঙে সোজা চালকের আসনে। আচমকা ঘোড়ার ধাক্কায় চালকও আহত। আহত হয়েছে ঘোড়াটিও। এরপর সেই গাড়ি থেকে আহত ঘোড়াটিকে বাইরে বের করতে আনতে গলদঘর্ম স্থানীয় মানুষজন ও বনকর্মীদের।

রবিবার দুপুর, গোলাপী শহর বলে খ্যাত রাজস্থানের জয়পুরে তাপমাত্রা ৪৩ ডিগ্রির আশপাশে ঘোরাফেরা করছে। বাইরে প্রচন্ড গরমের কারণে নিজের ক্লান্ত ঘোড়াটিকে জয়পুরের হাসানপুরা এলাকায় রাস্তার ধারেই একটি খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রেখেছিলেন ঘোড়ারটির মালিক। সঙ্গে মুখের সামনে খাবারের একটি থলেও বেঁধে দিয়েছিলেন। এপর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। কিছু পরেই খাবারের থলেটি কোনপ্রকারে ঘোড়াটির চোখে আটকে যায়। বিপত্তি শুরু সেখান থেকেই। এরপরই ঘোড়াটি তা ছাড়ানোর চেষ্টা করে। কিন্তু তা না হওয়ায় উন্মত্ত হয়ে ওঠে ঘোড়াটি। তারপর আবার মাথার ওপরে সূর্যের প্রচণ্ড তাপ। এক সময় ঘোড়াটি ছটপট করতে করতে করতে বাঁধা খুঁটিটিকে উপড়ে ফেলে। উন্মত্ত ঘোড়াটিকে রাস্তায় দৌড়াদোড়ি করতে দেখে রাস্তা থেকে মানুষজনও প্রাণ বাঁচাতে নিরাপদে আশ্রয় নিতে থাকে। এর মধ্যেই হাসানপুরা থেকে ছুটতে ছুটতে জ্যাকব লেনে পৌঁছয় উন্মত্ত ঘোড়াটি। প্রথমে একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা মারে এরপর রাস্তার ওপরে দাঁড়িয়ে থাকা একটি গাড়িতে গিয়ে সজোরে ধাক্কা দেয় ঘোড়াটি। ধাক্কা মারার সঙ্গে সঙ্গেই গাড়িটির সামনের কাঁচ (উইন্ড স্ক্রিন) ভেঙে সোজা গাড়িটির মধ্যে ঢুকে যায় ঘোড়াটি। আহত হয় ঘোড়াটি। ঘোড়ার ধাক্কায় মারাত্মকভাবে আহত হন গাড়িটির চালক পঙ্কজ যোশীও।

ঘটনার পরই আহত গাড়ির মালিক ও ঘোড়াটিকে উদ্ধারে ছুটে আসে স্থানীয়রা। পরে ঘোড়াটিকে উদ্ধার করতে আসে বন দফতরের কর্মকর্তারাও। প্রায় ১৫ মিনিট পর গাড়িটির চালক ও ঘোড়াটিকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসার পর পঙ্কজ যোশীকে ছেড়ে দেওয়া হলেও আপাতত চিকিৎসাধীন রয়েছে আহত ঘোড়াটি।

পশু চিকিৎসক ড. অরবিন্দ মাথুর জানান, ‘প্রচণ্ড গরমের কারণেই ঘোড়াটি এই ধরনের আচরণ করছিল। তারপর চোখে কিছু দেখতে না পাওয়ায় আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছিল। ঘোড়াটির সামান্য আঘাতপ্রাপ্ত হলেও তেমন গুরুতর নয়’।

Open