কথা কাটাকাটির জেরে নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাত

নগরীর নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন তিন শিক্ষার্থী। সোমবার দুপুরে কথাকাটাকাটির জের ধরে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের আরো ক’জন শিক্ষার্থী তাদের ছুরিকাঘাত করে। হামলাকারীরা ছাত্রলীগ কর্মী বলে জানা গেছে।
হামলায় আহত হন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী তাজেদুল হক, মাজারুল ইসলাম মিয়াদ ও মোস্তাক আহমদ। এদের মধ্যে তাজেদুলের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহত তিনজনকে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হামলার পর বিশ্ববিদ্যালয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের কর্মী আশিক আহমদের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয় বলে জানা গেছে। তার সাথে হামলায় দ্বীপরাজ, জায়েদ ও কামরান নামে আরো তিনজন ছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে। হামলাকারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের এলএলবি বিভাগের শিক্ষার্থী।
নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রথিন্দ্র চন্দ্র গোপ গণমাধ্যমকে বলেন, কথা কাটাকাটির জের ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এতে তিন শিক্ষার্থী আহত হন। এদের মধ্যে তাজেদুল নামে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
আশিক আহমদ নামে এক হামলাকারীকে সনাক্ত করা গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। তদন্তে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ ব্যাপারে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহারিয়ার আলম সামাদ গণমাধ্যমকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে হাতাহাতি হয়েছিলো। এতে ছাত্রলীগের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। ঘটনার সময় আমরা কাছাকাছিই ছিলাম। হট্টগোল শুনে ক্যাম্পাসের ভেতরে গিয়ে দুই পক্ষকে শান্ত করি।
এ ব্যাপারে কতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গৌছুল আলম বলেন, হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। মামলা হলে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে বলে জানান তিনি।

Open