থানা হাজতে যুবকের মৃত্যু: পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ…..

নিজস্ব প্রতিবেদক :: জৈন্তাপুর থানা হাজতে নজরুল ইসলাম বাবু নামক এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় ওসিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলার তদন্ত করতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রবিবার সিলেটের আমলী আদালত-১ এর বিচারক আতিকুল হায়দার এ নির্দেশ দেন। আগামী ১০ জুলাইয়ের মধ্যে এ সংক্রান্ত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বাবুর মৃত্যুর ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার তার মা রোকেয়া বেগম জৈন্তাপুর থানার ওসিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়- জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সফিউল কবীরকে। মামলায় একই থানার এসআই শফিকুর রহমান, এএসআই হুমায়ুন, এএসআই জয়নাল, কন্সটেবল আব্দুল হান্নানকেও আসামী করা হয়েছে। এছাড়া নিহত নজরুল ইসলাম বাবুর স্ত্রী উপজেলার উমনপুর এলাকার নাছরিন ফাতেমা, আব্দুল হান্নান, নোমান আহমদ, শাহরিয়ার মাহমুদ, নাজমুল হোসেন ও মইনুল ইসলামকেও আসামী করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ মে ভোররাতে জৈন্তাপুর থানা হাজতের ভেতরে নজরুল ইসলাম বাবু মারা যান। পুলিশ দাবি করে, বাবু আত্মহত্যা করেছেন। তবে বাবুর পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন, বাবুকে নির্যাতনের মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে।

গত বছরের ১৬ নভেম্বর জৈন্তাপুরের ঘিলাতৈল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা নাসরিন ফাতেমাকে বিয়ে করেন নজরুল ইসলাম বাবু। বিয়ের পর তাদের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। একপর্যায়ে নাসরিন ফাতেমা বাবার বাড়ি চলে যান এবং নির্যাতনের অভিযোগ এনে বাবুর বিরুদ্ধে মামলা করেন। ওই মামলায়ই ১৯ মে রাতে বাবুকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।

বাবুর মৃত্যুর ঘটনায় চার পুলিশ সদস্যকে গত বৃহস্পতিবার সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open