বড়লেখায় নিখোঁজের পর স্কুল ছাএের লাশ উদ্ধার….

সুরমাটাইমস ডেস্ক ঃ মৌলভীবাজারের বড়লেখায় ঢলের পানিতে নিখোঁজের ২৭ ঘণ্টা পর স্কুলছাত্র রাকিবুল হাসানের (৭) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রাকিবুল সদর ইউনিয়নের মুছেগুল গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে ও স্থানীয় প্রাইমারী স্কুলের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র।

স্থানীয় দমকল বাহিনী শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে তার লাশ উদ্ধারে ব্যর্থ হয়। পরে রবিবার সকালে সিলেট থেকে ডুবুরী দলও টানা প্রায় ৭ ঘণ্টা প্রচেষ্টা চালায়। অবশেষে বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে হতভাগা রাকিবুলের লুঙ্গি দেখে জনৈক ইমাম উদ্দিন তার লাশ সনাক্ত করেন।

ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে বড়লেখা উপজেলায় ভারি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানি দেখতে সহপাঠীদের সাথে বাড়ি থেকে বের হয় রাকিবুল হাসান। বাড়ির পাশের জলমগ্ন রাস্তায় হাঁটার সময় হঠাৎ স্রোতের তোড়ে সে ভেসে যায়। পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী তাকে খোঁজে না পেয়ে খবর দেন ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে। খবর পেয়ে দমকল বাহিনী সন্ধ্যা পর্যন্ত খোঁজাখুঁজি করে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়। পরে সিলেট থেকে আসা ডুবুরী দল রবিবার ভোর ৬টা থেকে ১টা পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে উদ্ধার অভিযান স্থগিত করে। এর দুই ঘণ্টা পর মুছেগুল প্রাইমারী স্কুলের পাশের জলাশয়ে গ্রামের জনৈক ইমাম উদ্দিন ভাসমান একটি বস্তু দেখে সামনে অগ্রসর হন। পরে রাকিবুল হাসানের লুঙ্গি দেখে তিনি তার লাশটি সনাক্ত করেন।

বড়লেখা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার লিডার হিমাংশু রঞ্জন সিংহ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বিকেল সাড়ে ৫টায় জানান, ‘পানি ও স্রোতে বেশি থাকায় দীর্ঘ চেষ্টা চালিয়েও শিশুটির লাশ উদ্ধার সম্ভব হয়টি। পরে সিলেট থেকে দুই সদস্যের ডুবুরী দল এনে টানা ৭ ঘণ্টা চেষ্টা চালানো হয়। অবশেষে বিকেলে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open