ওঁরাও সম্প্রদায়ের ভূমি দখলচেষ্টা : জোরালো হচ্ছে আন্দোলন, পুলিশ ও জনপ্রতিনিধির ঘটনাস্থল পরিদর্শন

ডেস্ক ::
সিলেট নগরীর উপকন্ঠ বালুচর চন্দনটিলায় ওঁরাও আদিবাসী জনগোষ্ঠীর ভূমি দখলের অপচেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত শনিবার সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনার প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে, ওঁরাও আদিবাসীদের ভূমি পরিদর্শন করেছেন শাহপরাণ থানা পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। তাঁরা ভূমিতে কোনো স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ দিয়েছেন সংশ্লিষ্টদের। দখল অপচেষ্টা রোধে আন্দোলন ক্রমশ জোরালো হচ্ছে। ওঁরাওদের ভূমি দখল ঠেকাতে মাঠে নেমেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
গত শুক্রবার শাহপরান থানা পুলিশ সরেজমিনে গিয়ে ওঁরাও আদিবাসীদের ভূমিতে কোন ধরণের স্থাপনা নির্মাণ না করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন বলে জানান শাহপরান থানার ওসি আখতার হোসেন। এসময় তার সাথে ছিলেন স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলী হোসেন।
গত শনিবার শহিদমিনার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিস্টার মোহাম্মদ আরশ আলী সভাপতিত্ব করেন। মানবাধিকার কর্মী ইন্দ্রানী সেন শম্পার পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘বালুচরে অতিদরিদ্র ওঁরাও আদিবাসী জনগোষ্ঠী বংশ পরম্পরায় তাদের পৈর্তৃক ভিটায় বসবাস করছে। ওঁরাও আদিবাসীদের দারিদ্র্য ও অশিক্ষার সুযোগ নিয়ে টুলটিকর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যানসহ একদল সংঘবদ্ধ ভূমিখেকোচক্র দীর্ঘদিন ধরে তাদের ভূমিদখলের ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। ভূমিখেকোচক্রটি নানা কৌশলে জাল দলিলের মাধ্যমে ইতোমধ্যে অনেক ওঁরাও পরিবারকে উচ্ছেদ করে তাদের জায়গা জমি দখল করে সেখানে বাড়িঘর নির্মাণ করেছে। সিলেটের সকল প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন ছাত্র, যুব, নারী, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পরিবেশবাদী সংগঠন ওঁরাওদের সাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভূমিখেকোদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চালিয়ে যাচ্ছে। ভূমিখেকোরা ইতিমধ্যে পাহাড় টিলা কেটে দখল করলেও পরিবেশ অধিদপ্তরকে বিষয়টি বারবার অবহিত করা হলেও কোন কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। বক্তারা প্রশাসনসহ পরিবেশ অধিদপ্তরের এহেন নীরবতায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।’
বক্তারা আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল নাগরিকের বেঁচে থাকার জন্য সমান অধিকার রয়েছে। আদিবাসীদের ভূমি রক্ষা করে তাদের সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। আর তাই তাদের ভূমি রক্ষায় কোন প্রকার ষড়যন্ত্র মেনে নেয়া হবে না। বক্তারা তাই ওঁরাও আদিবাসীদের ভূমি রক্ষায় রাজপথে থেকে আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।
সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে কোর্ট পয়েন্টে গিযে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক এবং সিলেট জেলা সভাপতি লোকমান আহমেদ, সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরো সদস্য ধীরেন সিংহ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড সিকান্দর আলী, বাসদ সিলেটের সমন্বয়ক আবু জাফর, বাসদ মার্কসবাদী সিলেট জেলা নেতা মলয় দেব, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি সিলেট জেলা সভাপতি আবুল হোসেন, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম, মানবাধিকারকর্মী লক্ষীকান্ত সিংহ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি সিলেট জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য দীনবন্ধু পাল, বাংলদেশ যুবমৈত্রী কেন্দ্রীয় বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হিমাংশু মিত্র, যুব ইউনিয়নের জাতীয় পরিষদ সদস্য নিরঞ্জন দাশ খোকন, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন সিলেটের সাধারণ সম্পাদক কাজী আনোয়ার হুসেন, বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদ সিলেট জেলা সাধারণ সম্পাদক সায়েদা আক্তার, সারতি ওঁরাও, মিলন ওঁরাও, সত্যজিত গঞ্জু, রমনী ওঁরাও, সীমা মাল। সমাবেশে ছাত্র মৈত্রী, ছাত্র ফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন আদিবাসী জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি বালুচরে ওঁরাও সম্প্রদায়ের ভূমি গ্রাস করতে একটি ভূমিখেকো চক্র দখলকৃত ভূমিতে মামলা চলমান অবস্থায় বাড়িঘর নির্মাণ করে।

Open