জৈন্তাপুরে বিজিবি’র অভিযানে গরু আটক : জনতার সড়ক অবরোধ

জৈন্তাপুর বাজারে বিজিবি কর্তৃক বাজার থেকে গরু ধরে নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে সিলেট তামাবিল মহাসড়ক আড়াই ঘন্টা অবরোধ করেছেন এলাকাবাসী।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে সিলেট তামাবিল সড়কের চাঙ্গীলস্থ জৈন্তাপুর বিজিবি ক্যাম্পের সম্মুখে রাস্তা অবরোধ করা হয়। ফলে রাস্তায় দেখা দেয় তীব্র জানযট। পরে আলোচনা সাপেক্ষে তা প্রত্যাহার করা হয়।

ব্যবসায়ী সূত্রে জানা যায়- প্রায় এক মাস পূর্বে উপজেলার কেন্দ্রী গ্রামের ব্যবসায়ী সমির আলী দরবস্ত বাজার হতে ৪টি গরু ক্রয় করেন৷ কিছুদিন পরিচর্যার করে বুধবার ৪টি গরু বিক্রয়ের জন্য জৈন্তাপুর বাজারে নিয়ে আসেন।

এ সময় ৪৮ বিজিবির জৈন্তাপুর ক্যাম্পের সদস্যরা বাজার সংলগ্ন রাজবাড়ী মাঠ হতে ব্যবসায়ী ৪টি গরু ধরে নিয়ে যায়৷ ব্যবসায়ী বার বার সঠিক কাগজপত্র দেখানোর পরও বিজিবি গরু গুলো চোরাই বলে ক্যাম্পে নিয়ে যায়৷ ব্যবসায়ী নিরুপায় হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমানকে জানান৷

তাৎক্ষনিক ভাবে চেয়ারম্যান ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এবং বিজিবির সাথে কথা বলেন৷ একপর্যায়ে বিজিবির জৈন্তাপুর ক্যাম্পের সদস্যরা চেয়ারম্যানের সাথে অসদাচারণ করে৷ চেয়ারম্যানের সাথে অসদাচরনের সংবাদে এলাকাবাসী সন্ধ্যা ৬টায় সিলেট তামাবিল মহাসড়কের চাঙ্গীলস্থ জৈন্তাপুর বিজিবি ক্যাম্পের সম্মুখে রাস্তা অবরোধ করে৷ ফলে রাস্তার উভয় পাশ্বে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে৷

এদিকে ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুহেল মাহমুদ, জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সফিউল কবির, ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী তোফায়েল, বাহারুল আলম বাহারসহ ব্যবসায়ীরা৷

বর্তমানে বিজিবি কর্তৃক জৈন্তাপুরের ব্যবসায়ীদের নানা ভাবে হয়রানির অভিযোগ তুলে ধরা হয়৷ একপর্যায়ে বিজিবির ইনফরমান এই গরু গুলো সঠিক নয় বলে জানায়৷ কিন্তু বিজিবি গরু ভারত হতে পাচাঁর করে আনা গরু প্রমান করতে ব্যার্থ হয়৷ এদিকে রাস্তা অবরোধসহ জৈন্তাপুর ক্যাম্প অবরোধ করে স্থানীয়রা৷

Sharing is caring!

Loading...
Open