তোয়াকুল ইউনিয়নের বীরকুলী স্কুল রাস্তার বেহাল দশা-দেখার যেন কেউ নেই

14691071_867387930027437_7480853301346379146_nগোয়াইনঘাট  প্রতিনিধি :: গোয়াইনঘাট উপজেলার তোয়াকুল ইউনিয়নের বীরকুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে  পূর্ব দক্ষিনমূখী বায়তুল নাজাত জামে মসজিদের পাশ দিয়ে বীরকুলী দক্ষিণ পূর্বপাড়া পর্যন্ত রাস্তাটির বেহাল দশা দেখার যেন কেউ নেই। মাত্র ২ কিলোমিটার স্কুল রাস্তা প্রয়োজনীয় সংস্কার না হওয়ায়  গ্রামের ৫হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র  গ্রামীণ সড়কটির এমন বেহাল দশা । রাস্তাটি স্বাধীনতার পর থেকে এই পর্যন্ত কোন জনপ্রতিনিধি প্রয়োজনীয় সংস্কার করেনি। শুষ্ক মৌসুমে পায়ে হেটে চলা গেলে বর্ষা আসলে বেড়ে যায় মানুষের দুর্ভোগ। বেশি চলতে কষ্ট হয় স্কুল কলেজের শিার্থী সহ মহিলাদের ফলে ঘটছে নানা ধরণের দুর্ঘটনা। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন উন্নয়ন হলেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি এই গ্রামের রাস্তা ঘাটের উন্নয়নে। প্রাচীন হালে জীবন যাপন করতে হয় এই গ্রামের মানুষকে। নামমাত্র কিছু মাটি দিয়ে তাদের নিজের দায়িত্ব শেষ করেছেন জনপ্রতিনিধিরা। একাধিকবার এই রাস্তাটির জন্য বাজেট আসলেও সংস্কা হয়নি এই রাস্তাটি।এ রাস্তা দিয়ে এই গ্রামের সকল শ্রেণীর লোকজনসহ,কোমলমতি ছাত্র/ছাত্রীরা প্রতিদিন বীরকুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সোনার বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়, তোয়াকুল কলেজ, তোয়াকুল মাদ্রাসা, কুরুম খলা মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াত করে থাকে। এছাড়া এ রাস্তাটি গ্রামবাসীর চলাচলের অন্যতম মাধ্যম হওয়ার কারণে বর্ষাকালে রাস্তায় কাঁদা জমে জন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। যার ফলে গ্রামবাসী ও কোমলমতি ছাত্র/ছাত্রীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াতে চরম দূভোর্গ পোহাতে হয়।
এই স্কুল রাস্তাটি পাকাকরণে দীর্ঘ দিন থেকে আবেদন নিবেদন করেও কোন সুফল হচ্ছে না। উপরোক্ত ২ কিলোমিটার স্কুল রাস্তা পাকাকরণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে উক্ত গ্রামের ছাত্র/ছাত্রীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াতের পথ সুগম করতে যথা যতো কতৃপক্ষের সু দৃষ্টি কামনা করেন ভুক্তভোগীরা।

Sharing is caring!

Loading...
Open