শিক্ষামন্ত্রী আসছেন, তাই পরীক্ষা স্থগিত করে বৃষ্টিতেও সড়কে শিক্ষার্থীরা

26026ডেস্ক রিপোর্টঃ আইন করে নিষিদ্ধ করার পরও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে স্বাগত জানাতে সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে শিক্ষার্থীদের বৃষ্টির মধ্যে দুই ঘন্টা রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছে।
শনিবার বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত উপজেলার দিরাই উচ্চ বিদ্যালয় ও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায় সাড়ে পাঁচশ শিক্ষার্থী শহরের থানা চত্বরের সামনে সড়কে দাঁড়িয়ে থাকে।
ওই পথ দিয়ে দিরাই পৌরসভার দোওজ এলাকায় সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত মহিলা কলেজ ও সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত downloadপলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
২০১৪ সালের ২৭ জানুয়ারি জনপ্রতিনিধিদের সংবর্ধনা দিতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের রাস্তায় দাঁড় করানোর উপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে তা অমান্য করলে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে ‘কঠোর ব্যবস্থা’ নেওয়ার কথা জানিয়ে পরিপত্র জারি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।
স্কুল দুটির ১৫-২০ শিক্ষার্থী সাংবাদিকদের জানায়, শিক্ষকদের নির্দেশেই তারা বই-খাতা নিয়েই রাস্তার দুপাশে দাঁড়ায়। যে কারণে দুটি স্কুলে সকালে কোনো ক্লাস হয়নি। আর পরীক্ষা নেননি দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।
মন্ত্রীর আগমনে দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণির অর্ধ বার্ষিকী পরীক্ষা ও দশম শ্রেণির প্রাক নির্বাচনী পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। শিক্ষকরা ছাত্রদের জানিয়েছেন, পরবর্তীতে স্থগিত পরীক্ষা নেওয়া হবে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক বলেন, নুরুল ইসলাম নাহিদ একজন গণ্যমান্য ব্যক্তি ও মন্ত্রী। তিনি এলাকায় এসেছেন শুনে বিদ্যালয়ের ছাত্ররা নিজ থেকেই রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাকে স্বাগত জানিয়েছে।
“তাদের রাস্তায় দাঁড়ানোর জন্য আমরা কোনো চাপ দিইনি। স্থগিত পরীক্ষা পরবর্তীতে নেওয়া হবে।”
একই কথা বলেন দিরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আরেক এক শিক্ষক।
জেলা শিক্ষা অফিসার মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, “মন্ত্রী মহোদয় নিজেই শিক্ষার্থীদের রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখাটা পছন্দ করেন না, বৃষ্টির মধ্যে তাদের দাঁড়িয়ে রাখাটা শিক্ষকদের উচিত হয়নি।”
“দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষা আগামী শুক্র অথবা শনিবার নেওয়া হবে বলে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন,” বলেন নিজাম উদ্দিন ।

Sharing is caring!

Loading...
Open