মুস্তাফিজ এখন কী করবেন

zzস্পোর্টস ডেস্ক : ভারত জয় করে সোমবার রাতে দেশে ফিরেছেন জাতীয় দলের তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। কাটার, স্লোয়ার ও ইয়র্কারে আইপিএল মাতিয়ে হয়েছেন সেরা তরুণ উদীয়মান ক্রিকেটার। সেই সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছেন ক্রিকইনফো নির্বাচিত আইপিএলের সেরা একাদশেও। দেশে ফিরে পেয়েছেন বীরের সংবর্ধনা। এখন তার পরবর্তী মিশন কী হবে! আগে থেকেই শোনা যাচ্ছিল দেশে ফিরেই তিনি উড়বেন ইংল্যান্ডের উদ্দেশে। সেখানে কাউন্টি লীগে খেলবেন সাসেক্সের হয়ে। অন্যদিকে দেশে চলছে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ। ‘প্লেয়ার বাই চয়েজে’ তাকে দলে টেনেছে মোহামেডান ক্লাব। বর্তমানে লীগের শীর্ষে থাকা দলটির লক্ষ্য শিরোপা। তাই যে কোন মূল্যে চাইবে মুস্তাফিজ যেন তাদের হয়েই মাঠে নামেন। আর আইপিএলে দীর্ঘ সফরে তিনি ক্লান্ত এবং কিছুটা ইনজুরি আক্রান্তও সেই হিসেবে তার প্রয়োজন বিশ্রাম। এমনই অম্ল-মধুর সমস্যায় মুস্তাফিজ। গতকাল এই তরুণ পেসার এসেছিলেন মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট মাঠে। এসে সাক্ষাৎ করেন বোর্ড কর্তাসহ ক্রিকেটারদের সঙ্গে। তবে তার অন্যতম কাজ ছিল জাতীয় দলের ফিজিও বায়জিদুল ইসলাম ও চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী সঙ্গে দেখা করা। করেছেনও তাই। তবে মুস্তাফিজের অবস্থা ও পরবর্তী করণীয় নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামুদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘একটানা বেশ কয়েকটা টুর্নামেন্ট খেলার ফলে দৈহিক কিছু সমস্যা হচ্ছে। আইপিএল থেকে ফিরেছে গতকাল। আমরা তাকে একটা অ্যাসেসমেন্ট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিচ্ছি। আমাদের ফিজিও যারা আছেন তারা আজ পরীক্ষা করেছেন ম্যানুয়ালি এবং তাকে আরো কিছু পরীক্ষা করা হবে। এরপর রিপোর্ট পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নিতে পারবো আমরা কিভাবে এগোবো।’
মুস্তাফিজ মিরপুর মাঠে আসেন বেলা ১১টার পর। সেই সময় তার সাক্ষাৎ হয় জাতীয় ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার সঙ্গে। সে সময় মাশরাফি তাকে জড়িয়ে ধরেন। দেখা করেন বিসিবির পরিচালক জালাল ইউনুসের সঙ্গে। তার অবস্থা নিয়ে ফিজিও বায়জিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা এখনই কোনো মতামত দিতে পারবো না। আমাদের প্রধান কাজ ছিল ওর কাছ থেকে সব কিছু জানা। হালকা কিছু বিষয় পরীক্ষা করে দেখা। সেটি আমরা করেছি। এছাড়াও কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করতে হবে। সেটি মেডিকেল বিভাগের কাজ। ওকে নিয়ে কিছু বলতে হলে সব রিপোর্ট পেতে হবে। সব কিছু মিলিয়েই বলতে পারবো ও এখনই মাঠে নামবে নাকি বিশ্রাম প্রয়োজন। এটি সত্যি যে ইনজুরি নিয়ে খেলা যায় না। আবার অনেক ক্রিকেটার আছেন যারা কিছুটা ইনজুরি নিয়েও মাঠে নামেন। কিন্তু আমরা ওকে নিয়ে ঝুঁকি নেবো না। আগে দেখি রিপোর্ট কেমন আসে এরপর জানাতে পারবো।’ একই কথা জানালেন চিকিৎসক দেবাশিষও। তিনি বলেন, ‘মুস্তাফিজের বিষয়ে এখনই কিছু বলতে পারছি না। ও আমাদের সঙ্গে দেখা করেছে। ওর কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষাও দরকার। এরপরই বলা যাবে। এছাড়াও বোর্ড থেকেও ওকে নিয়ে কোনো কিছু বলা আমাদের নিষেধ আছে। যা বলার আমাদের রিপোর্টের পর বোর্ড জানাবে।’
এর আগে মুস্তাফিজ বিমানবন্দরেই জানিয়েছেন এখনও সাসেক্সে খেলার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেননি তিনি। মুস্তাফিজের জন্য সোমবার রাতে বিমানবন্দরে বর্ণাঢ্য আয়োজনের এক ফাঁকে বলেন, ‘ফাইনাল ম্যাচের আগে পায়ে একটু ব্যথা ছিল। আমি কালকে বোর্ডে যাবো। ফিজিওকে দেখাবো। বোর্ডে কথা বলবো তারপর জানা যাবে।’ তবে, বিসিবি সূত্রের খবর আপাতত মুস্তাফিজকে সাসেক্সে পাঠিয়ে ঝুঁকি নিতে চায় না বোর্ড। আবার কোচ চন্ডিকা হাতুরুসিংহে ক’দিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন আগামী বছরে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির কথা মাথায় রেখে মুস্তাফিজের কাউন্টি খেলা উচিত। ওদিকে মোহামেডানের পক্ষ থেকেও জোর দাবি মুস্তাফিজ খেলবেন তাদের হয়েই। এই বিষয়ে মোহামেডানের ম্যানেজার ওয়াসিম খান বলেন, ‘আমরাতো চাইছি। কিন্তু সব কিছু নির্ভর করবে মুস্তাফিজের ফিটনেসের ওপর। যদি ও ফিট থাকে তাহলে খেলবে। তবে আমি আশা করি এখন না হলেও সুপার লীগে মুস্তাফিজ মোহামেডানের হয়ে খেলতে পারে। তবে এখনই সঠিকভাবে জানাতে পারছি না। এখানে বোর্ডের সিদ্ধান্তের বিষয়ও আছে।’
বিসিবির একটি সূত্র জানায়, খেলার চেয়ে এখন মুস্তাফিজের বেশ কিছু দিন বিশ্রাম প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘ওকে (মুস্তাফিজ) দেখে ওর সঙ্গে কথা বলে যা মনে হয়েছে ও মানসিক, শারীরিকভাবে বেশ পরিশ্রান্ত। ও নিজেও সে কথাই বলেছে যে, খুব ক্লান্ত-বিশ্রামটা প্রয়োজন। তাই আমি মনে করি খেলার চেয়ে আগে কিছুদিন বিশ্রাম নিলে ওর ইনজুরি ঝুঁকি কমে যাবে।

 

Sharing is caring!

Loading...
Open