কুলাউড়ায় একটি রাস্তার জন্য ৪ গ্রামের বাসিন্দাদের দুর্ভোগ

Kulaura-Bijoya Rood Block (3)বিশ্বজিৎ রায়, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারে কুলাউড়া উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নে জনগুরুত্বপূর্ন একটি রাস্তা পাকাকরণ না হওয়ায় চার গ্রামের মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কাদিপুর, মিয়ার মহল, লক্ষীপুর ও কিয়াতলা (আংশিক) এলাকায় যাতায়াতের এ রাস্তাটি বর্ষা মৌসুম এলেই চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়ে। বর্ষা মৌসুম ছাড়াও বছরের যে কোন সময় একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তাটির অবস্থা নাজুক হয়ে পড়ে। ফলে দুর্ভোগের শেষ নেই স্থানীয়দের।
Kulaura-Bijoya Rood Blockকুলাউড়া-নবাবগঞ্জ বাজার সড়ক থেকে সংযোগ কাদিপুর প্রাইমারি স্কুলের পাশ দিয়ে বয়ে চলা এ রাস্তাটি পেকুরবাজার মিয়ারমহল সড়কের সাথে সংযুক্ত হয়। প্রায় ২ কিলোমিটার এ রাস্তা পাকাকরণ না করায় এলাকাবাসীকে প্রায় চার কিলোমিটার ঘুরে বিকল্প রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে হয়। চরম বিড়ম্বনায় পড়তে রোগী নিয়ে। মূমূর্ষ রোগী বহন করতে কোন যান্ত্রিক গাড়ি এ রাস্তা দিয়ে যেতে চায়না।
Kulaura Kadipur Rasta -একই অবস্থা কুলাউড়া-বিজয়া সড়কটির। দীর্ঘদিন থেকে সংস্কার কাজের অভাবে খানা-খন্দ হয়ে জনসাধারণের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। কুলাউড়া বিছরাকান্দি থেকে বিজয়াবাজার পর্যন্ত সরু রাস্তাটির ৩ কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে ৮টি মারাত্মক ঝুকিপূর্ণ বাঁক। এই বাঁকগুলোতে যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। তারপরও চালকেরা জীবন-জীবিকার তাগিদে প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে সড়ক দিয়ে গাড়ি চালায়। দীর্ঘদিন থেকে সংস্কার বা কোন ধরনের তদারকি না থাকায় রাস্তার বিভিন্ন স্থানে দু’পাশের জায়গা দখল করে নিয়েছেন অনেকেই।
এই এলাকারই সন্তান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন এমপি নির্বাচিত হওয়ায় মানুষের মনে একটি আশার সঞ্চার হয়েছিল যে, অন্তত এই কুলাউড়া-বিজয়া রাস্তাটি সংস্কার হয়ে বড় করা হবে। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার ২ বছরেরও অধিক সময় অতিবাহিত হলেও নিজ এলাকার মানুষের যাতায়াতের রাস্তাটির কোন উন্নয়ন হয়নি। এ নিয়ে অত্রাঞ্চালের মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী আবুল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি গত বছরের ন্যায় এবারো বলেন, খুব শ্রীঘ্রই রাস্তাটির সংস্কার কাজ শুরু হবে।
মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন এমপির সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, অন্যান্য রাস্তাগুলোতে কাজ চলছে, ধারাবাহিকভাবে এই রাস্তার কাজও শুরু করা হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open