সেলিম ওসমানের শাস্তি চান ৭ মন্ত্রী

222-4-550x261-1-1ডেস্ক রিপোর্টঃ শিক্ষক নির্যাতন নিয়ে এখন সারাদেশে চলছে তোলপাড়। গত ১৩ মে নারায়ণগঞ্জে ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি এবং শিক্ষার্থীকে মারধর করার অভিযোগে কলাগাছিয়া ইউনিয়নের কল্যান্দি এলাকায় পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে গণপিটুনি দিয়ে সবার সামনে কান ধরে উঠবস করিয়ে ক্ষমা চাওয়ানো হয়। নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব শ্যামল কান্তি ভক্তকে প্রকাশ্যে অপমান ও লাঞ্ছিত করার ঘটনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শিক্ষক সমিতি তীব্র প্রতিবাদ এবং নিন্দা জানিয়েছে।
পাশাপাশি এ ঘটনায় সাংসদ সেলিম ওসমানের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করেছে জবি শিক্ষক সমিতি। এরপর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা সাংসদ সেলিম ওসমানের বিচারের দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। এ ঘটনায় সেলিম ওসমানসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে আগামী তিনদিনের মধ্যে জানাতে পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এছাড়া ৭ জন মন্ত্রী শিক্ষক নির্যাতনের জন্য সাংসদের শাস্তি দাবি করেছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম
শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে কান ধরে উঠবস করানোর ফলে জাতীয় পার্টির (জাপা) সংসদ সদস্য নাসিম ওসমানকে উদ্দেশ্য করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, লজ্জা থাকলে উনার আর সংসদে বসা উচিত নয়।
রোববার সোয়া ১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নেওয়ার পর সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি হিসাবে, একজন সংসদ সদস্য প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে এমন আচরণ করা ঠিক হয়নি। এ জন্য সেই (নাসিম ওসমান) সাংসদের ক্ষমা চাওয়া উচিত।
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু
নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক লাঞ্ছনাকারীদের কোনো রকম ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। বুধবার (১৮ মে) সকালে সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
নিজের হাতে আইন তোলার অধিকার কারও নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘যারা আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে এই অপকর্ম করেছে তাদেরকে সরকার এক চুলও ছাড় দেবে না।’ মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমি নারায়ণগঞ্জের ওই শিক্ষককে লাঞ্ছনার ঘটনার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি।’
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তের বিরুদ্ধে ধর্ম নিয়ে কটূক্তির প্রমাণ এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। আইন শৃঙ্খলা সম্পর্কিত মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের রোববার এ কথা জানান তিনি।
সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যত ক্ষমতাধরই হোক, শিক্ষক লাঞ্ছনাকারীদের শাস্তি পেতেই হবে। গত ১৮ এপ্রিল সকালে ফেনী নদীর উপর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ধুমঘাট ও মুহুরী সেতু উদ্বোধন করে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা জানান।
নারায়ণগঞ্জে শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করানো প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটা মোটেও মেনে নেয়া যায় না। যে একজন শিক্ষককে লাঞ্ছিত করবে তাকে শাস্তি পেতেই হবে। তিনি যত বড়ই হোন না কেন; পার পাবেন না।
জোনায়েদ সাকি
নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে শ্যামল কান্তি ভক্তকে তাঁর পদ ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় স্থানীয় জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানসহ ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে পুরো ঘটনার জন্য বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটিকে জবাবদিহিতার আওতায় আনারও দাবি জানিয়েছেন। বুধবার ১৮ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ শহরের বালুর মাঠে সংগঠনের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি এ কথা বলেন।
জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘যাঁরা এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তাঁদের বিচার হওয়ার কথা, সেখানে প্রধান শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে। অবিলম্বে সেই স্কুল কমিটিকে জবাবদিহিতার আওতায় আনা হোক। শ্যামল কান্তিকে স্বপদে বহাল করতে হবে, সব নিরাপত্তা রাষ্ট্রকে দিতে হবে। এর মধ্যে একটা সাম্প্রদায়িক মাত্রা দেওয়ার চেষ্টা এ অপরাধকারীদের মধ্যে আমরা দেখতে পেয়েছি।’
হাইকোর্ট
নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে আগামী তিনদিনের মধ্যে জানাতে পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।
গত বুধবার ১৮ এপ্রিল বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেন।
একই সঙ্গে সেলিম ওসমানসহ দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেছেন আদালত।
আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্রসচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আওয়ামী জোট ১৪ দল
নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত হওয়া শ্যামল কান্তি ভক্তের পুনর্বহাল চেয়েছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪-দলীয় জোট। জোট মনে করে, সেলিম ওসমান যে কাজটি করেছেন, সংসদ সদস্য হিসেবে তাঁর মর্যাদা তিনি রক্ষা করতে পারেননি। বরং অন্য সাংসদদের মর্যাদাও তিনি ক্ষুন্ন করেছেন।
গত বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪ দলের এক বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও জোটের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘কেউ অপরাধ করলে আইন তো আছে। কিন্তু একজন সংসদ সদস্য প্রকাশ্যে যে কাজটি করেছেন, এটা ক্ষমাহীন অপরাধ।’
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তের লাঞ্ছনার ঘটনার তদন্ত হচ্ছে। এর প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গত বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, শিক্ষকের লাঞ্ছনার ঘটনাটি দুঃখজনক। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ওই ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর এর আলোকে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
শিক্ষককে কান ধরে ওঠ-বস করে লাঞ্ছিত করার ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দনীয় কাজ উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন এ ঘটনায় জড়িতরা অবশ্যই শাস্তি পাবেন।
গত মঙ্গলবার রাজধানীর বিচার-প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে বিচারকদের তিনদিন ব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী একথা বলেন।
আইনমন্ত্রী বলেন, নারায়ণগঞ্জে প্রধান শিক্ষককে কান ধরে ওঠ-বস করানোর ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে। শিক্ষককে কান ধরে ওঠ-বস করানোর ঘটনাটি অত্যন্ত নিন্দনীয় কাজ। তিনি বলেন, কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নিতে পারেন না। আইন নিজের তুলে নেওয়া কখনই বরদাস্ত করা হবে না। ফৌজদারি কার্যবিধি অনুয়ায়ী এ ঘটনায় অভিযুক্তরা অবশ্যই শাস্তি পাবেন।
অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক
নারায়ণগঞ্জে প্রধান শিক্ষককে কান ধরে ওঠ-বসের পর বহিষ্কারের ঘটনা আরও বড় অপরাধ মন্তব্য করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক দায়ীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছেন।
গত বুধবার সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক সভা শেষে বেরিয়ে যাওয়ার সময় শিক্ষক লাঞ্ছনার বিষয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘এটা একটি জঘন্য ঘটনা।’
সরকারের পদক্ষেপে সন্তুষ্ট কিনা- জানতে চাইলে উপাচার্য বলেন, ঘটনা ঘটলে তদন্ত করা ও দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। এজন্য হয়তো কিছুটা সময় লাগতে পারে। সময় বড় কথা নয়, যথাযথ শাস্তি যাতে হয় সেটা দেখতে হবে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান
ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের এক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে কান ধরে উঠ-বসে বাধ্য করার ঘটনায় সরকার বিচলিত বলে উঠে এসেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কথায়।
শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় স্থানীয় সাংসদসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হবে না- হাইকোর্টের এমন রুল জারি ও এ ঘটনায় কিছু করার নেই- নারায়ণগঞ্জ পুলিশের এমন দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়টি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নজরে আনা হলে তিনি বলেন, কোনো শিক্ষককেই অসম্মান করা উচিৎ নয়। এ ঘটনায় আমরা বিচলিত।
গত বুধবার বিকেলে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে মালিতে ঝড়ের কবলে পড়ে নিহত দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীর জানাজা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন মন্ত্রী।
ইসলামী সংগঠন
ধর্ম নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ এনে নারায়ণগঞ্জের শিক্ষক শ্যামল কান্তির বিরুদ্ধে মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন একটি ইসলামী সংগঠন।
গত বুধবার ১৮ এপ্রিল তাহরিকে খতমে নবুয়্যত বাংলাদেশ নামের সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্যামল কান্তির ফাঁসির দাবি জানানো হয়। আর এ দাবি সপক্ষের মিছিলটি চাষাড়ার গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে।
পরে সমাবেশে বক্তারা ইসলাম রক্ষায় সকল মুমিন-মুসলমানকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। একইসাথে এমপি সেলিম ওসমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করা হয় সমাবেশ থেকে।
তাহরিকে খতমে নবুয়্যত সভাপতি এনায়েল উল্লাহ আব্বাসী বলেন, এমপি সেলিম ওসমানের বিরোধীতায় যারা নেমেছে তারাও ধর্মদ্রোহী এবং রাষ্ট্রদ্রোহী। বামপন্থ’ী নাস্তিকদেরকে আমি হুঁশিয়ার করে দিচ্ছি, বর্তমান এমপির সাথে যে দ- সেটা সিটি করপোরেশনের কোনো দ- নয়। এটা হচ্ছে মুসলমানের সাথে নাস্তিকের দ-।

Sharing is caring!

Loading...
Open