হবিগঞ্জে কুকুরের কামড়ে শিক্ষার্থীসহ আহত অর্ধশতাধিক

11111112222222222223নিউজ ডেস্ক : হবিগঞ্জ শহরে বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে। কুকুরের হাত থেকে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী, শিশু ও পথচারীরা রক্ষা পাচ্ছে না। ইতোমধ্যে বেওয়ারিশ কুকুরের কামড়ে শিক্ষার্থী ও শিশুসহ অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। তবুও হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষ কুকুর নিধনের জন্য কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন নগরবাসী।

জানা যায়, রবিবার সকালে শহরের উত্তর শ্যামলী, নোয়াবাদ, জালালবাদ, উমেদনগর এলাকার অর্ধশতাধিক লোকজন কুকুরের কামড়ে আহত হয়েছে। আহতদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

বিভিন্ন স্থানের আহতরা জানান, সকালে নিজ নিজ কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য বের হলে বেওয়ারিশ কুকুরের দল তাদের উপর আক্রমণ করে। এতে অনেকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতপ্রাপ্ত হন। অনেকেই দৌড় দিয়ে পালিয়ে গিয়ে রক্ষা পান। কুকুরের কামড়ে আহতদের মধ্যে রয়েছেন শহরের হরিপুর এলাকার শিশু মামুন মিয়া (১০), উত্তর শ্যামলী এলাকার জেবা বেগম (৪৫), একই এলাকার হেলান চৌধুরী (৪০), উমেদনগর এলাকার মুন্না মিয়া (১৩), জালালাবাদ-নোয়াগাও গ্রামের সীমা আক্তার (২২), লাল মতি বেগম (৫০), পিয়ারা বেগম (৪০), মনিকা আক্তার (১০), বাদল মিয়া (৪০), মিলন মিয়া (১৮), হানিফ উল্লাহ (২০), শাহানুর আলী (৭০), নোয়াহাটি এলাকার জাহিদ মিয়া প্রমুখ।

আহত জাহিদ মিয়া বলেন : হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষ বেওয়ারিশ কুকুরগুলো নিধন না করায় আমরা আক্রমণের শিকার হয়েছি। হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপেক্ষর কাছে কুকুর নিধন করার জন্য দাবি জানান নগরবাসী।

হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের ডাক্তার বজলুর রহমান  জানান, আহতদের ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে। তারা সকলেই শঙ্কামুক্ত।

Sharing is caring!

Loading...
Open