ভোট যুদ্ধে দুই নবাব!

PIC KULAURA CM 2 BROTHERশরীফ আহমেদঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার নবাব আলী তকী খান ও নবাব আলী বাকর খান (হাসনাইন) আসন্ন ৭ মে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দুই ভাই চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। দুই ভাইর ভোট যুদ্ধ তুঙ্গে উঠেছে। তারা দু’জনেই ভোট প্রার্থনায় চষে বেড়াচ্ছেন ঐতিহ্যবাহী পৃথিমপাশা ইউনিয়নের ভোটারদের দারে দারে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বিরামহীন গতিতে ছুটছেন ভোটারদের মন জয় করতে। যেন নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন নবাব পরিবারের এই দুই ভাই। একই সাথে এ পরিবারের দুই ভাই প্রার্থী হওয়ায় তাদেরকে নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন ও পুরো উপজেলায় চলছে আলোচনা সমালোচনা।

জানা যায়, এ দুই ভাই মধ্যে নবাব আলী তকী খাঁন এবারের নির্বাচনে বিএনপির মনোনিত প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপর দিকে বড় ভাই নবাব আলী বাকর খান (হাসনাইন) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চশমা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়,পৃথিমপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী নবাব আলী তকী খান ও নবাব আলী বাকর খান হাসনাইনের বড় ভাই মৌলভীবাজার ২ আসনের সাবেক তিনবারের জাতীয় সংসদ সদস্য ও বর্তমান জাতীয় পাটি (জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য নবাব আলী আব্বাস খাঁন। অপর ভাই নবাব আলী নকী খাঁন পৃথিমপাশা ইউনিয়ন পরিষদের দুইবারের চেয়ারম্যান ছিলেন। তাঁদের পরিবারের দুই ভাই একই সঙ্গে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে চলছে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনার ঝড়।

পৃথিমপাশা ইউনিয়নের ভোটার জসিম মিয়া ও রহিম মিয়া জানান, দুই ভাইয়ের প্রচারণায় পুরো ইউনিয়ন নির্বাচনি আমেজ সৃষ্টি হয়েছে।প্রিয় প্রার্থীর নাম না বলে তারা জানান সময় মত পছন্দের প্রার্থীকেই ভোট দেবেন।

একই ইউনিয়নের ভোটার রহমত আলী জানান, নবাব পরিবারের দুই ভাই চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেও এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আরও হেভিয়েট প্রার্থী রয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ঐতিহ্যবাহী নবাব পরিবারের এ দুই ভাই এলাকাবাসীর কাছে পরাজিত হতে পারেন বলে তিনি জানান।

এদিকে নবাব আলী বাকর খান (হাসনাইন) গত নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করে পরাজিত হয়ে ভাই নবাব আলী তকী খাঁনের কাছে বেকায়দায় রয়েছেন বলে জানা যায়। তবে হাসনাইন বলেন,নির্বাচনী ভোট যুদ্ধে এবার তাঁর ছোট ভাই তকী খাঁন পাত্তাই পাবে না। অপরদিকে তকী খাঁন চ্যালেঞ্জ করে বলেন হাসনাইনের চেয়ে তাঁর জনপ্রিয়তা বেশি তাই তিনিই নির্বাচনে জয়ী হবেন বলে আশাবাদি।

Sharing is caring!

Loading...
Open