বিয়ানীবাজারে সংখ্যালঘু কলেজ ছাত্রী অপহরণ, পুলিশের ভিন্নমত

kidnapডেস্ক রিপোর্টঃ বিয়ানীবাজার উপজেলায় মৌরি পুরকায়স্থ নামে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক কলেজ ছাত্রী রোববার থেকে নিখোঁজ রয়েছেন। ওই কলেজ ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, মৌরিকে অপহরণ করা হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে এটি অপহরণ নয়।
জানা যায়, বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণীর সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ছাত্রী মৌরি পুরকায়স্থ প্রতিদিনেই মতো রোববার কলেজে গিয়ে আর বাড়ি ফিরে আসেন নি। বিকেল পর্যন্ত মৌরির কোনো সন্ধান না পেয়ে মৌরির বাবা উপজেলার জলডুবের আশু পুরকায়স্থ সন্ধ্যায় বিয়ানীবাজার থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করেন।
মৌরি পুরকায়স্থের মা প্রতিমা পুরকায়স্থ সোমবার গণমাধ্যমকে জানান, মৌরির বন্ধুবান্ধবের বাড়িতেও আমরা খোঁজ নিয়েছি। কিন্তু কোনো খোঁজ পাইনি।
মৌরিকে অপহরণ করা করা হয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, গত ৬ এপ্রিলও তাকে অপহরণের চেষ্টা করা হয়েছিল। সেদিন একটি প্রাইভেটকারে করে তাকে তুলে নিয়ে যায়। স্থানীয় একটি চা বাগান এলাকায় গাড়ি থামলে কৌশলে মৌরি সেখান থেকে পালিয়ে আসে। স্থানীয়দের সহায়তায় সেদিন মৌরি অপহরণকারীদের হাত থেকে রক্ষা পায় বলে জানান প্রতিমা পুরকায়স্থ।
এদিকে, অপহরণের পর মৌরিকে ঢাকার একটি বাসায় আটকে রাখা হয়েছে বলে জানতে পেরেছেন বলে অভিযোগ করেছেন মৌরির পরিবারের একাধিক সদস্য।
তবে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুবায়ের আহমদ বলেন, এটি অপহরণ নয়। ওই কলেজ ছাত্রী তার পরিচিত এক ছেলের সাথে চলে গেছে। মেয়েটির পরিবারের লোকজনই বিষয়টা জানে। আমরা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করছি।

Sharing is caring!

Loading...
Open