সম্মিলিত নাট্য পরিষদের তিনদিন ব্যাপী নাট্য কর্মশালা সম্পন্ন

প্রত্যেকটি নাট্যকর্মী একেকজন দেশপ্রেমিক
…………. নাট্যকার নির্দেশক- প্রবীর গুহ

DSC_0140সিলেটের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম চালিকাশক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট আয়োজিত তিনদিন ব্যাপী উচ্চমানের নাট্যকর্মশালায় সমাপনী অনুষ্ঠানে উপমহাদেশের প্রখ্যাত নাট্যকার ও নির্দেশক প্রবীর গুহ বলেন, নাট্য চর্চার অধিকতর উন্নতিকল্পে, উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নাট্যচর্চাকে সময়োপযোগী ও বেগবান করা যায়। তিনি বলেন, প্রত্যেকটি দেশের নাট্য আন্দোলনে নাট্যকর্মীরা সেই দেশের ভাষা, সংস্কৃতি, রাজনীতি, সামাজিক, সংঘতি, অসংঘতি ইত্যাদি শ্রম, ঘাম, মেধা দিয়ে নাটকের মধ্য দিয়ে ফুটিয়ে তুলেন। নাটক সবসময় সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয়। তাই নাটকের মধ্য দিয়ে প্রত্যেকটি নাট্যকর্মী একেকজন দেশপ্রেমিক নাগরিক। তিনি সিলেটের নাট্যকর্মীদের সমষ্টিগত শক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদের এই প্রয়াসের ভুয়সী প্রশংসা করে এবং বলেন, সিলেটে নাট্য আন্দোলন বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনকে সমৃদ্ধ করছে।

গতকাল ২৩ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর ঐতিহ্যবাহী সারদা হল সন্নিকটে অতি সম্প্রতি সিলেট সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক নির্মিত সম্মিলিত নাট্য পরিষদের স্থায়ী মহড়া কক্ষে তিনদিন ব্যাপী নাট্যকর্মশালার সমাপনী দিনে সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে উল্লেখিত বক্তব্য রাখেন প্রবীর গুহ। গত ২১ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এই নাট্যকর্মশালায় সিলেটের নাট্যাঙ্গনের ১৬টি দলের ৪০ জন নাট্যকর্মী অংশ নেয়। তিনদিন ব্যাপী এই কর্মশালায় নাট্যচর্চার বিকাশ এবং প্রতিশ্রুতিশীল নাট্যকর্মীদের দক্ষতা ও মান উন্নয়নের লক্ষ্যে কর্মশালার প্রশিক্ষক প্রবীর গুহ কাজ করেন।

সমাপনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন- সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি অনুপ কুমার দেব, পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজতকান্তি গুপ্তের পরিচালনায় সমাপনী অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য রাখেন- উপমহাদেমের বিখ্যাত নাট্যকার ও নির্দেশক ভারতের রাষ্ট্রপতি পদকপ্রাপ্ত নাট্যজন, বিশ্ব বরেণ্য নাট্য নির্দেশক প্রবীর গুহ। অনুষ্ঠানের অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রাক্তন প্রধান পরিচালক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ব্যারিষ্টার মোঃ আরশ আলী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের পরিচালক নিরঞ্জন দে যাদু, রওশন আরা মনির রুনা, প্রাক্তন পরিচালক চম্পক সরকার, নাট্যকার ও নির্দেশক বাবুল আহমেদ, প্রশিক্ষণার্থী ইন্দ্রানী সেন সম্পা, রুবেল আহমদ কোয়াশা, উপস্থিত ছিলেন- নাট্য পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ কামরুল হক জুয়েল। সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী প্রত্যেক নাট্যকর্মীর হাতে সনদপত্র তুলে দেন কর্মশালার প্রশিক্ষক প্রবীর গুহ। এই কর্মশালার মধ্য দিয়ে সিলেটের প্রতিশ্রুতিশীল দক্ষ নাট্যকর্মী ও তরুণ নাট্যকর্মীদের মধ্যে প্রাণের সঞ্চার ঘটেছে। প্রবীর গুহকে প্রশিক্ষণার্থীদের পক্ষে উত্তরীয় পড়িয়ে দেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সহসভাপতি ও প্রশিক্ষণার্থী খোয়াজ রহিম সবুজ এবং টি-শার্ট উপহার দেন পরিষদের প্রচার ও দপ্তর সম্পাদক প্রশিক্ষণার্থী সাইফুর রহমান চৌধুরী সুমন।

প্রবীর গুহ ১৯৬৫ সাল থেকে অভিনেতা ও নির্দেশক হিসাবে কাজ শুরু করেন। তার রচনা ও নির্দেশনায় ৮৫টির বেশি নাটক দেশে বিদেশে মঞ্চস্থ হয়েছে। তিনি ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ২০০৮ সালে “সঙ্গীত ও নাটক একাডেমী অ্যাওয়ার্ড” পান। এছাড়াও লাভ করেন কমনওয়েলথ্ অ্যাওয়ার্ড। বিশ্ব বিখ্যাত নাট্যকার নির্দেশকদের সাথে রয়েছে তার কাজ করার অভিজ্ঞতা, তিনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থিয়েটার ওয়ার্কশপ পরিচালনা করেছেন। বর্তমানে তিনি ভারতের ন্যাশনাল ওয়াইড অলটারনেটিভ থিয়েটার ইনিশিয়েটিভ (নাটি) এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open