সিলেটে প্রবাসীর বাড়িতে হামলা লুটপাট : গ্রেফতার নেই

Untitled-1 copyডেস্ক রিপোর্ট : সিলেটে প্রবাসীর বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের ঘটনার ১৫দিনেও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ফলে হামলাকারীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন মহিলা শিশুসহ প্রবাসীর পরিবার। তারা তাদের জানমালের নিরাপত্তায় উর্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
সিলেট শহরতলী উত্তর বালুচর আল ইসলাহ ডি ব্লকের ২নং রোডের ১৯ নং বাসার সৌদী প্রবাসী সোহলে আহমদের স্ত্রী পলি আক্তার চৌধুরী জানান, রাস্তায় জনচলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি নিয়ে তার পরিবারের সাথে প্রতিবেশী আতাউর রহমানের বিরোধ চলে আসছিল। সম্প্রতি আতাউর রহমান ও তার স্বজনরা রাস্তায় বাঁধ নির্মান করে জনচলাচলে বাঁধা সৃষ্টির পাশপাশি তাদের ভুমি জবরদখলের পায়তারা করছে। গত ৫এপ্রিল দুপুরে আতাউর রহমান ও তার লোকজন রাস্তায় বাঁধ দিয়ে জনচলাচলের প্রতিন্ধকতা সৃষ্টি করতে চাইলে প্রবাসীর স্ত্রী পলি আক্তার চৌধুরী প্রতিবাদ করেন। অমনি আতাউর রহমান ও তার লোকজন মারমূখী হয়ে পলি আক্তারকে ধাওয়া করেন । এক পর্যায়ে আতাউর ও তার লোকজন পলি আক্তারে ভাই মাসুম আহমদ চৌধুরীর উপর সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালায় । হামলাকারীরা মাসুম আহমদ চৌধুরীকে গুরুতর জখম করে তারে পায়ের গোড়ালী ভেঙ্গে দেয়। এসময় হামলাকারীরা প্রবাসীর শিশু সন্তানদেরও মারপিট করে । তারা প্রবাসী পরিবারে ঘরে প্রবশে করে স্বর্নালংকার ও নগদ টাকাসহ প্রায় দেড়লাখ টাকার মালপত্র লুটে নেয়। গুরুতর অবস্থায় মাসুম আহমেদ চৌধুরীকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
পরবর্তীতে এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী পলি আক্তার চৌধুরী বাদী হয়ে এসএমপির শাহপরাণ (র.) থানায় একটি মামলা {নং-১১(৪)১৬}করেন। মামলায় আতাউর রহমান, আতাউর রহমানের পুত্র সোলেমান. ওসমান ও এমরান এবং তাদের সহযোগী জামাল,কালাম,খোকন ও নিজামসহ একই বালুচর এলাকার ১১জনকে আসামী করা হয়।
হামলা ও মামলার দীর্ঘ ১৫দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও কোন একজন আসামীকেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ফলে হামলাকারীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে । তারা পুলিশের নাকের ডগায় বসে রাস্তায় বাঁধ দিয়ে জনচলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে । পাশপাশি প্রবাসী পরিবারকে হত্যা অপহরন ও গুম করার হুমকি দিচ্ছে । সন্ত্রাসীদের ভয়ে প্রবাসীর শিশুসন্তানরা স্কুলে যাতায়ত করতে পারছে না বলে অভিযোগে প্রকাশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসএমপির শাহপরাণ থানার এসআই কাশেম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি হামলা ও মামলার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘটনার র্প থেকে আসামীরা গ্রেফতার এড়িয়ে চলছে। তাদের গ্রেফতারে পুলিশের তল্লাশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open