সুনামগঞ্জে ভোটারদের নাগাল পাচ্ছেন না প্রার্থীরা

হাওরের বোরো ফসল নিয়ে ব্যস্ত কৃষক, ইউপি নির্বাচনের প্রার্থীদের প্রচারণায় বিঘ্ন

20318ডেস্ক রিপোর্টঃ আগামী ২৩ এপ্রিল সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ২৬ ইউনিয়নে তৃতীয় দফা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে চেয়ারম্যান-মেম্বার প্রার্থীরা পোস্টার, বিলবোর্ডসহ নানাভাবে প্রচারণায় ব্যস্ত থাকলেও ভোটারদের কাছে পাচ্ছেন না। বোরো ফসল নিয়ে কৃষকরা হাওরে ব্যস্ত থাকায় প্রার্থীরা প্রচারণা চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন।
সুনামগঞ্জ সদর, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ এবং দোয়ারাবাজার উপজেলায় আগামী ২৩ এপ্রিল নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনে প্রার্থী দিয়ে নানাভাবে প্রচারণা চালাচ্ছে। জয়ের জন্য নিয়মিত প্রচারণায় পিছিয়ে নেই প্রার্থীরা। এদিকে সুনামগঞ্জে এখন চলছে বোরো মওসুম। প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখে পড়েছে হাওরের ফসল।
আধাপাকা ধান অতিবর্ষণ, শিলাবৃষ্টি এবং বাধ ভেঙ্গে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাই হন্যে হয়ে একফসলি এলাকার এই কৃষকরা এখন বাড়িঘর ছেড়ে হাওরে বোরফসল নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এ অবস্থায় নির্বাচনের চেয়ারম্যান মেম্বার প্রার্থীরা প্রচারণায় বিপাকে পড়েছেন। কৃষকরা বাড়িতে না থাকায় তাদের কাছে নিজেদেরকে তুলে ধরতে পারছেন না। তবে অনেকে হাওরে গিয়েও কৃষকদের মধ্যে প্রচারণ চালাচ্ছেন।
কৃষকদের প্রচারণায় না পেলেও প্রার্থীরা প্রতিদিনই বিভিন্ন হাটবাজারসহ জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে কর্মী সমর্থকদের downloadনিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তাদের পক্ষে মিছিল মিটিং হচ্ছে নিয়মিত। প্রার্থীরাও জানিয়েছেন নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে তারা আশাবাদী। তবে এখন পর্যন্ত নির্বাচন নিয়ে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটায় স্বস্থি প্রকাশ করেছেন সাধারণ মানুষ।
সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউপির আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী আব্দুস সোবহান জানান, আমি বাড়ি বাড়ি যাচ্ছি পাশাপাশি হাওরেও যাচ্ছি ভোটারদের মন জয়ের চেষ্টা করছি। এখন বৈশাখ মাস কৃষকের একমাত্র ফসল ঘরে তোলার সময়। এমনিতেই ফসলহানির আশংকায় দিনরাত হাওরে বাওরে কাজ করছে তাই বাড়িতে নারী ভোটারদের দোয়া চাচ্ছি আর ফসলের মাঠেও যাচ্ছি।
দক্ষিন সুনামগঞ্জ উপজেলার দরগাপাশা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো: ছুফি মিয়া জানান, আমাদের ভোটার এ সময়ে ফসল নিয়ে ব্যাস্ত থাকেন তাই প্রচারনায় ব্যাস্ত সময় পার করতে হচ্ছে আমাদের। আবার বিভিন্ন হাওরেও নিয়মিত যেতে হচ্ছে তাদেও খোজ খরব নিতে।
এদিকে আগামী ২৩ এপ্রিল ৩টি উপজেলার ইউপি নির্বাচনে সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট ৪৯ জন প্রার্থী, সাধারণ সদস্য পদে ৪০৬ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১১২ জন। দক্ষিন সুনামগঞ্জে ৮টি ইউনিয়নে মোট ৪০ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, সাধারন সদস্য পদে ৩১১ জন প্রার্থী ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৮৬জন প্রতিন্দ্বিতা করছেন।
দোয়ারাবাজার উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট ৬১ জন, সাধারন সদস্য পদে ৩৮৪ জন ও সংরক্ষিত মহিলা পদে ৯৫ জন প্রতিদন্ধিতা করছেন। এ ৩টি উপজেলার ৩ লাখ ৯৭ হাজার ভোটার শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন এমনটাই আশা তাদের।

Sharing is caring!

Loading...
Open