প্রেমের প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে কিশোরীর গাল কামড়ে দিল বখাটে!

61271ডেস্ক রিপোর্টঃ দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে দিয়ে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে কিশোরীর ওপর ‘শোধ তুললো’ এক বখাটে। তবে বখাটের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় কিশোরীর মা-বাবা নীরব রয়েছেন। শনিবার সকালে ভোলা সদর উপজেলার পরানগঞ্জ এলাকায় এমন ঘটনা ঘটেছে।
নির্যাতিতা কিশোরী পরানগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। আর বখাটের নাম জুয়েল (২৪)। তিনি পরানগঞ্জ এলাকার ভাষানীর ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, কিশোরী ছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরেই পথেঘাটে উত্ত্যক্ত করে আসছিল বখাটে জুয়েল। কিন্তু বারবারই ব্যর্থ হচ্ছিল। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে মেয়েটিকে মানসিক শাস্তি দেয়ার পরিকল্পনা নেয়। পরিকল্পনা মোতাবেক শনিবার বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে জুয়েল কিশোরীর পথরোধ করে। এরপর জড়িয়ে ধরে গালে মুখে কামড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়।
পরে ওই কিশোরী বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও বাবা-মাকে বিষয়টি জানায়। এ ঘটনায় পরে বিদ্যালয়ে সালিশ বসে। সালিশে বখাটেকে ১৫ ঘা বেত মারা হয়। সেই সঙ্গে কিশোরীর পা ধরে মাপ চাইতে হয়।
ভোলা সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই)সাইদুর রহমান ও পরাণগঞ্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান জানান, দুপুরে বিদ্যালয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বখাটের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সালিশ বৈঠকে বসার পর বখাটের শাস্তি দেয়া হয়েছে।
সালিশে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় কাচিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. শাজাহান মাষ্টার, ছয় নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মনির হোসেন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্যের স্বামী ইয়াছিন, বখাটে জুয়েল, জুয়েলের চাচা আব্দুল মালেকসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি।
সালিশে দেয়া সিদ্ধান্ত মোতাবেক জুয়েলকে ১৫টি বেত্রাঘাত ও কিশোরীর পা ধরে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open